default-image

এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকার নিউরোলজি বিভাগ পালন করেছে আন্তর্জাতিক মৃগীরোগ দিবস। ৮ ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক মৃগীরোগ দিবস উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন মেডিকেল সার্ভিসের পরিচালক সঞ্জয় কে পাঠারে। আরও উপস্থিত ছিলেন নিউরোলজি ও অন্যান্য বিভাগের কনসালট্যান্ট ও হাসপাতালের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা।

সিনিয়র কনসালট্যান্ট, নিউরোলজিস্ট ও মৃগীরোগ বিশেষজ্ঞ আলিম আক্তার ভূঁইয়া এই রোগের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন। মৃগীরোগ সম্পর্কে আরও বলেন এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকার নিউরোলজি বিভাগের সিনিয়র কনসালট্যান্ট ও কো–অর্ডিনেটর খন্দকার মাহবুবর রহমান এবং সিনিয়র কনসালট্যান্ট সন্দীপ কুমার দাশ। সবশেষে মেডিকেল সার্ভিসের সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার আরিফ মাহমুদ সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপনের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ করেন।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বব্যাপী ৪০ ধরনের বেশি মৃগীরোগ আছে, এতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৬ কোটি, যাদের মধ্যে ৮০ শতাংশ স্বল্পোন্নত ও অনুন্নত দেশে বসবাস করে। মৃগীরোগ নিয়ে অনেক ভুল ধারণা প্রচলিত আছে, বিশেষ করে অনুন্নত দেশগুলোয়; এসব ক্ষেত্রে ডায়াগনস্টিক সংশয়গুলোও কাজ করে, যেহেতু অন্য বেশ কিছু মেডিকেল কন্ডিশনের সঙ্গে এর মিল রয়েছে। এক বা একাধিক অ্যান্টি-এপিলেপটিক ওষুধের মাধ্যমে প্রায় ৭০ শতাংশ মৃগীরোগীর ক্ষেত্রেই এই রোগ নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়।

এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকায় আউটপেশেন্ট ও ইনপেশেন্ট-বেসড সব মেডিকেলি রেসপনসিভ এপিলেপসি রোগীদের জন্য প্রয়োজনীয় সব ডায়াগনস্টিক ও চিকিৎসাসুবিধা রয়েছে; সেই সঙ্গে হাসপাতালে একটি পূর্ণাঙ্গ এপিলেপসি ক্লিনিক ও ইইজি মনিটরিং–সুবিধাও শীঘ্রই চালু হচ্ছে। এভারকেয়ার এই রোগ সম্পর্কে রোগীদের সচেতনতামূলক প্রোগ্রামগুলোও পর্যায়ক্রমে প্রচার করে থাকে। এপিলেপসি সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধি করার এবং এর প্রভাব সম্পর্কে বাংলাদেশের মানুষকে আরও অবগত করার আরেকটি পদক্ষেপ ছিল এভারকেয়ারের এই আয়োজন।

আন্তর্জাতিক মানের স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে এভারকেয়ার হসপিটাল ঢাকা বাংলাদেশের একমাত্র জেসিআই স্বীকৃত হসপিটাল। এটি এভারকেয়ার গ্রুপের একটি অংশ; এই গ্রুপের অধীনে বিশ্বের ২টি মহাদেশের ২৫টি শহরে ২৯টি হাসপাতাল, ১৬টি ক্লিনিক ও ৫৭টি ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েছে; উন্নয়নশীল দেশগুলোতে মানসম্পন্ন স্বাস্থ্যসেবা দেওয়ার মিশন নিয়ে কাজ করছে এই গ্রুপ।

স্বাস্থ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন