default-image

কম্পিউটার ব্যবহারের ক্ষেত্রে মাঝেমধ্যে একটু বিরতি নেওয়া প্রয়োজন। টানা বেশিক্ষণ কাজ করা মোটেও উচিত নয়। আমাদের প্রতি মিনিটে চোখের পলক ফেলা উচিত ১৮–২০ বার। কিন্তু কম্পিউটারে কাজ করার সময় প্রতি মিনিটে চোখের পলক পড়ে গড়ে ৭ থেকে ৮ বার। এ কারণে চোখে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দেয়। এর মধ্যে কম্পিউটার ভিশন সিনড্রোম (সিভিএস) অন্যতম। এতে চোখে শুষ্কতা ও ঝাপসা দেখার সমস্যা হয়।

টানা কাজ করায় পেশাগত জীবনে অনেক ব্যবহারকারীই সিভিএস রোগে আক্রান্ত হন। অথচ একটু সতর্ক হলে এ রোগ থেকে মুক্ত থাকা সম্ভব। এ ছাড়া যুক্তরাজ্যে এক গবেষণায় উঠে এসেছে, দীর্ঘ সময় এক জায়গায় বসে কম্পিউটারে কাজ করলে ডায়াবেটিস, স্ট্রোক, এমনকি হৃদ্‌যন্ত্রের সমস্যা হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

সিভিএস রোগের সাধারণ বৈশিষ্ট্য হলো চোখ লাল হয়ে যাওয়া, চোখে ব্যথা, সবকিছু দুটো করে দেখা ও মাথাব্যথা। শীতকালে এসব বেড়ে যায়। এসব সমস্যা এড়াতে যা করতে হবে, তা হলো—

  • কম্পিউটারে কাজ করার সময় এক ঘণ্টা পরপর বিরতি দিতে হবে। কাজের ফাঁকে দৃষ্টি সরিয়ে সবুজ কিছুর দিকে তাকানো ভালো।

  • যে কম্পিউটারে প্রতিদিন কাজ করা হয়, সেটির স্ক্রিন পরিষ্কার রাখতে হবে।

  • নিয়মিত বিরতিতে চোখের পলক ফেলতে হবে। এ বিষয়ে অবশ্যই সচেতন থাকতে হবে।

  • কম্পিউটার স্ক্রিন থেকে সঠিক দূরত্বে অবস্থান করুন। নইলে চোখের সমস্যা বাড়তে পারে। পেশিজনিত রোগের ঝুঁকিও বাড়বে এতে।

সিভিএসের ফলে চোখের শুষ্কতা বেড়ে যায়। যদি কর্মস্থলে শীতাতপ–নিয়ন্ত্রণব্যবস্থা থাকে, তাহলে সমস্যা আরও বাড়ে। কাজেই চোখসহ শরীরের আর্দ্রতা ধরে রাখতে বেশি করে পানি পান করতে হবে। কাজ করার সময় ঝলমলে আলোর দিকে তাকানো থেকে বিরত থাকুন। কম্পিউটার স্ক্রিনের আলোর মাত্রাও কমিয়ে নিন। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, চোখ নিয়মিত পরীক্ষা করাতে হবে। কোনো সমস্যা হলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

ইফতেখার মো. মুনির, অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান, বাংলাদেশ আই হসপিটাল, শান্তিনগর, ঢাকা

মন্তব্য পড়ুন 0