বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

টাইপ ২ ডায়াবেটিসে ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্সের একটি লক্ষণ হলো গলার পেছনে, কুঁচকিতে কালো, খসখসে আবরণ যা অ্যাকানথোসিস নেগ্রিকানস নামে পরিচিত। এ ছাড়া পায়ের সামনের ত্বকে গোলাকৃতি কালো-ছোপ দাগ পড়তে পারে। ত্বকের গভীর স্তরে চর্বি ও অন্যান্য স্তর ক্ষয় হতে থাকে।

কিছু সমস্যা আবার চিকিৎসার সঙ্গে জড়িত। যেমন কারও কারও ইনসুলিন দেওয়ার স্থানে ত্বক মোটা, উঁচু বা পাতলা হয়ে যায়। ইনসুলিন অ্যালার্জিও হতে পারে।

ত্বকের যত্নে সতর্কতা

যেকোনো ডায়াবেটিসের রোগীর ত্বকে কাটা-ছেঁড়া, প্রদাহ, ফুসকুড়ি বা ঘা দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। নিজে নিজে কখনো ফোঁড়া গালানো বা কাঁটা ওঠানো যাবে না। কাটলে বা আঘাত পেলে আক্রান্ত জায়গা সাবান-পানি দিয়ে ধুয়ে অ্যান্টিবায়োটিক ক্রিম ব্যবহার করুন। গোসলে অতিরিক্ত গরম পানি ব্যবহার করবেন না। মৃদু ক্ষারযুক্ত সাবান ব্যবহার করুন এবং গোসলের পর আর্দ্রতা রক্ষাকারী লোশন ব্যবহার করুন। আঙুলের ফাঁকে লোশন ব্যবহার করবেন না। রোজ গোসলের সময় বা রাতে নিজের পা পরখ করে দেখুন।

বছরে অন্তত দুবার চিকিৎসকের কাছে পা পরীক্ষা করিয়ে নিন। ডায়াবেটিস রোগীদের উপযোগী মোজা-জুতা-স্যান্ডেল ব্যবহার করুন। খালি পায়ে হাঁটবেন না। পায়ের যত্ন নিন। ত্বক ভেজা বা আর্দ্র রাখবেন না।

ইনসুলিন ব্যবহারের সময় ত্বক পরিষ্কার করে নেবেন। একই সুই বা নিডল অনেকবার ব্যবহার করবেন না। ইনসুলিন দেওয়ার পর স্থানটি ডলা বা ঘষা যাবে না। তারপরও ওই স্থানে কোনো সমস্যা দেখা দিলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন।

ডায়াবেটিসের রোগীদের ছত্রাক সংক্রমণ খুবই হয়ে থাকে। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অবলম্বন করুন। সব সময় রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণে রাখলে সংক্রমণ কম হয়। নখ বা ত্বকে ছত্রাক সংক্রমণ হলে চিকিৎসকের পরামর্শে মলম ও ওষুধ ব্যবহার করুন।

আগামীকাল পড়ুন: মূত্র সংক্রমণ এড়াতে কী খাবেন


ডা. জাহেদ পারভেজ, সহকারী অধ্যাপক, চর্ম ও যৌনরোগ বিভাগ, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

সুস্থতা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন