বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মাইগ্রেনের ব্যথা শুরু হয়ে গেলে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে (বিশেষ করে বমি হলে)। এ ছাড়া বিশ্রাম নিতে হবে। ঠান্ডা কাপড় মাথায় জড়িয়ে রাখলে কিছুটা আরাম পাওয়া যাবে। কিছু খাবার মাইগ্রেনের সমস্যা প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে।

এর মধ্যে ম্যাগনেশিয়ামসমৃদ্ধ ঢেঁকিছাঁটা চালের ভাত, আলু ও বার্লি অন্যতম। বিভিন্ন ফল, বিশেষ করে খেজুর ও ডুমুর ব্যথা উপশম করে। সবুজ শাকসবজি, ক্যালসিয়াম ও ভিটামিন-ডি মাইগ্রেন প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। তিল, আটা ও বিটে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম থাকে। দিনে দুবার আদার টুকরা কিংবা রস পানিতে মিশিয়ে খেতে পারেন।

মাইগ্রেনের সমস্যায় চকলেট, দুগ্ধজাত খাবার, টমেটো, সাইট্রাস ফল (লেবু, কমলালেবু ইত্যাদি), গমজাতীয় খাবার ও চীনাবাদাম এড়িয়ে চলাই ভালো। তবে ব্যক্তিভেদে ভিন্ন ভিন্ন খাবারে মাইগ্রেনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। কাজেই কোন কোন খাবার ও পারিপার্শ্বিক ঘটনায় মাইগ্রেন ব্যথা বাড়ছে বা কমছে, সেগুলো চিহ্নিত করে লিখে রাখতে হবে। ব্যথা বেশি হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

লেখক: ক্লিনিক্যাল নিউরোলজি বিভাগ, ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস ও হাসপাতাল, শেরেবাংলা নগর, ঢাকা

স্বাস্থ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন