লাইট হাউস কনসোর্টিয়ামের ‘দাড়াও’ কর্মসূচির আয়োজনে স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের সভায় বক্তারা
লাইট হাউস কনসোর্টিয়ামের ‘দাড়াও’ কর্মসূচির আয়োজনে স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের সভায় বক্তারাছবি: সংগৃহীত

লাইট হাউস কনসোর্টিয়াম যৌথ অংশীদারত্বের ভিত্তিতে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের আয়োজনে মাদকবিরোধী কার্যক্রম ‘ড্রাগ অ্যাবিউজ রেসিসট্যান্ট অ্যান্ড আন্ডারস্ট্যান্ডিং (দাড়াও)’ কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ দুপুর ১২টায় হোটেল ওয়ারিশানের সম্মেলনকক্ষে স্থানীয় সরকার প্রতিনিধিদের নিয়ে একটি অ্যাডভোকেসি সভার আয়োজন করে।


এক বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ইউএসএআইডি ও ইউকেএআইডি– এর আর্থিক সহায়তায় কাউন্টারপার্ট ইন্টারন্যাশনাল বাস্তবায়নাধীন প্রোমোটিং অ্যাডভোকেসি অ্যান্ড রাইটস (পার) কর্মসূচির আওতায় রাজশাহী ও নাটোর জেলায় প্রকল্পটি মাঠপর্যায়ে বাস্তবায়ন করছে।

বিজ্ঞাপন

অ্যাডভোকেসি সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র শরিফুল ইসলাম বাবু। এ সময় রাজশাহী বিভাগীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মো. জাফরুল্লাহ কাজল বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। লাইট হাউসের প্রধান নির্বাহী মো. হারুন-অর-রশিদের সভাপতিত্বে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক ইকবাল মাসুদ অ্যাডভোকেসি সভার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন আপস–এর নির্বাহী পরিচালক আবুল বাশার।

default-image

প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাসিক প্যানেল মেয়র শরিফুল ইসলাম বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স গ্রহণ করেছে। মাদকের ভয়াল থাবা থেকে সমাজকে রক্ষা করার জন্য সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা নিশ্চিত করতে একটি সুন্দর সমাজ বিনির্মাণ করতে হবে। রাজশাহী বিভাগীয় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মো. জাফরুল্লাহ কাজল সরকারের মাদকবিরোধী উদ্যোগের সঙ্গে স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো এগিয়ে এলে সহজে সফলতা পাওয়া যাবে।


সভাপতির বক্তব্যে লাইট হাউসের প্রধান নির্বাহী হারুন-অর-রশিদ বলেন, ‘মাদকবিরোধী কার্যক্রমটিকে আমরা সামাজিক আন্দোলনে পরিণত করতে চাই। তারই লক্ষ্যে আমাদের আজকের এ ক্ষুদ্র প্রয়াস। এই সামাজিক আন্দোলনে আমরা সমাজের সব স্তরের নাগরিকদের যুক্ত করে মাদকমুক্ত সুখী সমৃদ্ধ দেশ গঠনে ভূমিকা রাখতে পারব বলে বিশ্বাস করি। সরকারের রূপকল্প বাস্তবায়নে সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করব।’

অ্যাডভোকেসি সভায় উন্মুক্ত পর্বের আলোচনায় বক্তব্য দেন রাসিক কাউন্সিলর মো. নজরুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট নুরুজ্জামান, তৌহিদুল ইসলাম, ভালুকগাছি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তাকবির হাসান, রাজশাহী সুজনের সভাপতি সফিউদ্দিন আহমদ, রাজশাহী রক্ষা সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক জামাত খান, বাসসের সিনিয়র রিপোর্টার আইনুল হক, পরিবর্তনের প্রধান নির্বাহী রাশেদ রিপন, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি মামুনুর রশিদ, পার্টনার সংস্থার পরিচালক আলিমা খাতুন লিমা, বাংলাদেশ লাইভস্টক সোসাইটির সম্পাদক হেমায়েতুল ইসলাম প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, ইউএসএইড ও ইউকেএইডের আর্থিক সহায়তায় কাউন্টারপার্ট ইন্টরন্যাশনাল কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন প্রোমোটিং অ্যাডভোকেসি অ্যান্ড রাইটস (পার) কর্মসূচির আওতায় লাইট হাউস কনসোর্টিয়াম যৌথ অংশীদারত্বের ভিত্তিতে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন, লাইট হাউস, আসক্ত পুনর্বাসন সংস্থা (আপস) রাজশাহী এবং নারী ও শিশুকল্যাণ সোসাইটি মাদকবিরোধী কার্যক্রম ‘ড্রাগ অ্যাবিউজ রেসিসট্যান্ট অ্যান্ড আন্ডারস্ট্যান্ডিং (দাড়াও)’ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।

স্বাস্থ্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন