শ্বাসকষ্টে চাই সঠিক চিকিৎসা

বিশ্ব সিওপিডি দিবস উপলক্ষে ইউনিমেড ইউনিহেলথ, বাংলাদেশ লাং ফাউন্ডেশন ও প্রথম আলোর বিশেষ আয়োজনের বিষয় ছিল ‘দীর্ঘমেয়াদি শ্বাসকষ্ট—সিওপিডি: কারণ ও করণীয়’। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডা. মোহাম্মদ আবদুস শাকুর খান, কোষাধ্যক্ষ, বাংলাদেশ লাং ফাউন্ডেশন, বক্ষব্যাধিবিশেষজ্ঞ, জাতীয় বক্ষব্যাধি ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, মহাখালী, ঢাকা এবং ডা. মোস্তাফিজুর রহমান, কার্যকরী সদস্য, বাংলাদেশ লাং ফাউন্ডেশন, সহকারী অধ্যাপক (রেসপিরেটরি মেডিসিন), শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, মহাখালী, ঢাকা। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ডা. তেহরীন।
অনুষ্ঠানটি প্রথম আলো ও ইউনিমেডের পেজবুক পেজ থেকে সরাসরি সম্প্রচারিত হয়।

default-image

শ্বাসকষ্টের সঙ্গে সম্পর্কিত রোগ সিওপিডি সম্পর্কে ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এটি শ্বাসনালির একটি রোগ। এই রোগের ফলে ধীরে ধীরে শ্বাসনালি প্রস্থের দিকে কমতে শুরু করে। শ্বাসনালিতে প্রদাহ তৈরি হয় এবং তা দীর্ঘ মেয়াদে স্থায়ী হয়। তবে এর চিকিৎসা রয়েছে।

তিনি আরও জানান, ‘সিওপিডি সমস্যার কারণ হিসেবে ধূমপান অন্যতম। ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ রোগীর ক্ষেত্রে ধূমপান ক্ষতিকর ভূমিকা পালন করে। এর বাইরে রয়েছে ধুলাবালি ও ঠান্ডা। শিল্পবর্জ্য ও ধোঁয়া শ্বাসনালিতে এ ধরনের রোগ সৃষ্টির কারণ হিসেবে গণ্য করা হয়। বংশগতভাবে প্রাপ্ত, জন্মগত ত্রুটি এবং বয়সকেও গুরুত্বপূর্ণ কারণ হিসেবে মনে রাখতে হবে। বয়সের সঙ্গে সঙ্গে ফুসফুস দুর্বল হতে থাকে। ধূমপান একে ত্বরান্বিত করে।’

বিজ্ঞাপন

ডা. মোহাম্মদ আবদুস শাকুর খান জানালেন, এ বছরের বিশ্ব সিওপিডি দিবসের প্রতিপাদ্য, ‘সব সময় সিওপিডি রোগীর যত্ন নেব এবং সিওপিডি নিয়েও রোগী ভালো থাকতে পারে।’

এ আয়োজনে আলোচনার পাশাপাশি বেশ কয়েকজন রোগী লাইভে কমেন্টের মাধ্যমে সমস্যা জানিয়ে পরামর্শ চান। আমজাদ হোসেন নামের একজন দর্শক জানান, তাঁর শ্বাসকষ্ট হচ্ছিল এবং মাথা ঘুরাচ্ছে। আমজাদের সমস্যায় সমাধান হিসেবে ডা. মোহাম্মদ আবদুস শাকুর খান বলেন, ‘প্রথমেই জানতে হবে রোগীর শ্বাসকষ্টজনিত কোনো সমস্যা আছে কি না। শ্বাসকষ্ট হলে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে।’

অন্য একজন দর্শক অভি ঊর্মি ভুগছেন শ্বাসকষ্টে। প্রতিদিন তাঁর ইনহেলার নিতে হয়। এর সমাধানে ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘সিওপিডি চল্লিশের পরে হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। লক্ষণ শুনে বলা যায় রোগী অ্যাজমায় আক্রান্ত। জ্বর আছে কি না, জানতে হবে এবং নেবুলাইজার ব্যবহার করে শ্বাসকষ্ট কমাতে হবে। রোগীকে দ্রুত হাসপাতালে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হয়ে রেসকিউ থেরাপি গ্রহণ করতে হবে।’

করোনাকালের শ্বাসকষ্ট সম্পর্কে ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘শ্বাসকষ্টের সঙ্গে যদি করোনার লক্ষণ যেমন জ্বর, সর্দি, পাতলা পায়খানা, শরীরে ব্যথা থাকে, তাহলে পরীক্ষা করাতে হবে। মনে রাখতে হবে, সিওপিডি এবং করোনা উভয় সমস্যাতেই অক্সিজেন লেভেল কমে যায়। এইচআর সিটি পরীক্ষা করে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে চিকিৎসা শুরু করতে হবে।

শ্বাসকষ্ট থেকে লাং ড্যামেজের বিষয়ে বলেন, ‘মহামারির সময়ে শ্বাসকষ্ট হলে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে। অক্সিজেন লেভেল কমে গেলেও রোগী বুঝতে পারেন না, তখন সে অবস্থাকে চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায় হ্যাপি হাইপক্সিয়া বলা হয়। এর সঙ্গে জ্বরের ইতিহাস, গলাব্যথা—এ ধরনের লক্ষণ থাকলে ধরে নিতে হবে রোগী করোনা আক্রান্ত। চিকিৎসক রোগীর ইতিহাস এবং করোনা টেস্টের মাধ্যমে রোগীর অবস্থা নির্ণয় করে যথাযথ চিকিৎসার সিদ্ধান্ত নেবেন। মনে রাখতে হবে, সিওপিডিতে আক্রান্ত রোগীদের ফুসফুস দুর্বল হয়। এর ফলে শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। করোনায় ফুসফুস দুর্বল হয়ে শ্বাসকষ্টের মাত্রা বৃদ্ধি করার আশঙ্কা রয়েছে।

দর্শক নুসরাত মিতুর দীর্ঘমেয়াদি শ্বাসকষ্টের সমস্যায় ডা. মোস্তাফিজুর রহমান পরামর্শ দেন, ‘দীর্ঘমেয়াদি শ্বাসকষ্টের রোগীর চিকিৎসার ক্ষেত্রে কয়েকটি বিষয় বিস্তারিত জানতে হবে। এর প্রথমেই আছে চিকিৎসা সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য, ধুলাবালির সংস্পর্শের পরিমাণ, তিনি অ্যালার্জি আক্রান্ত কি না এবং এর সঙ্গে সঙ্গে তার রোগ, ওষুধ কোন স্তরে আছে, সে অনুযায়ী রোগীর চিকিৎসা শুরু করতে হবে।’
‘নাকে পলিপ থাকলে কি শ্বাসকষ্ট হতে পারে?’ দর্শক মারুফার এই প্রশ্নের উত্তরে ডা. মোহাম্মদ আবদুস শাকুর খান বলেন, ‘নাকে অ্যালার্জি জাতীয় প্রদাহ থাকলে পলিপ সমস্যা তৈরি হতে পারে। সঠিক ওষুধ ও পরামর্শে এ ধরনের সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।’

বিজ্ঞাপন

‘অ্যাজমা ও সিওপিডি কি একই অসুখ? বকুল হোসেনের এই প্রশ্নে ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘অ্যাজমা ও সিওপিডি দুটি ভিন্ন সমস্যা। একজন রোগী শ্বাসনালিতে ক্রনিক প্রদাহ থেকে অ্যাজমায় আক্রান্ত হন। এর কোনো নির্দিষ্ট বয়স নেই। আর সিওপিডিতে প্রধানত চল্লিশ বছরের বেশি যাঁদের বয়স, তাঁরা আক্রান্ত হন।’
ডা. মোহাম্মদ আবদুস শাকুর খান পালমরি হাইপারটেনশন এবং নিয়মিত ধূমপানে অভ্যস্ত একজন রোগীর সমস্যার সমাধানে বলেন, ‘সিওপিডির দীর্ঘ মেয়াদে পালমরি হাইপারটেনশনে পরিণত হয়। এর চিকিৎসায় আধুনিক মেশিন ও মেডিসিন ব্যবহার করা হয়। এই সমস্যা নির্মূলযোগ্য না হলেও সঠিক চিকিৎসায় সুস্থ জীবন যাপন করা সম্ভব।’

সানভী আহমেদ রাসেল বলেন, তাঁর বয়স ২২। অল্প পরিশ্রমেই আমি হাঁপিয়ে উঠি, এটা কি শ্বাসকষ্ট?’ রাসেলের প্রশ্নের উত্তরে ডা. মোহাম্মদ আবদুস শাকুর খান বলেন, ‘পরিশ্রমের কারণে হাঁপিয়ে ওঠা স্বাভাবিক। কিন্তু তার মাত্রা বেশি হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। অনেক সময় অ্যাজমার একটি লক্ষণ এটি। তাই দ্রুত সিদ্ধান্তে আসা প্রয়োজন।’

পূর্ণেন্দু কুমার রায় সিওপিডির লক্ষণগুলো সম্পর্কে জানতে চাইলে ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ‘পরিশ্রমে শ্বাসকষ্ট, কাশি, হাঁপানি সিওপিডির প্রধান লক্ষণ।’

মন্তব্য পড়ুন 0