বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ক্যাম্পইনে, পুষ্টি–সম্পর্কিত তথ্য ও পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের সামগ্রিক পুষ্টি অবস্থার উন্নতির জন্য পরামর্শ প্রদান করেন নূর বক্স। অভিভাবকদের মধ্যে শিশুর শারীরিক বৃদ্ধি–সম্পর্কিত তথ্য ছড়িয়ে দেওয়া, শিশুদের রক্তস্বল্পতা, অপুষ্টি প্রতিরোধে খাদ্যে এসএমসি মনিমিক্সের মতো অনুপুষ্টিযোগের গুরুত্ব সম্পর্কে নানা ধরনের পরামর্শ দেওয়া হয়। এ ছাড়া ক্যাম্পেইন চলাকালীন বিনা মূল্যে শিশুদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়। এর মধ্যে ছিল শিশুর বৃদ্ধি ও ওজন পর্যবেক্ষণ, গ্রোথ চার্টে ওজন লিপিবন্ধ করা, জিএমপি কার্ড বিতরণ, মারাত্মক অপুষ্টিতে আক্রান্ত শিশুদের প্রাথমিক চিকিৎসা ইত্যাদি।

default-image

মা, শিশু ও অভিভাবকদের ব্যাপক উৎসাহ ও সক্রিয় অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে এই ইভেন্ট সফলভাবে অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে মোট ১৩৪ জন মা তাঁদের শিশুদের নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। প্রায় ১১৮ জন অভিভাবকের মধ্যে এসএমসির অনুপুষ্টি পাউডার মনিমিক্স বিতরণ করেন।

কর্মসূচিটিতে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী মো. নাজির উদ্দিন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, এসএমসির মনিমিক্স হলো শিশুদের অপুষ্টির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সেরা সমাধান। শিশুর স্বাস্থ্য ও পুষ্টি অবস্থার উন্নয়নে অভিভাবকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি করতে ব্লু-স্টার সেবা প্রদানকারীর এই উদ্যোগ সত্যিই অসাধারণ ও অত্যন্ত কার্যকর।

এই উদ্যোগের ইতিবাচক পরিবর্তন লক্ষ করে এসএমসি পরবর্তী সময়ে ব্লু-স্টার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে শিশুর পুষ্টিবিষয়ক সেবা ও পরামর্শের প্রচার ও প্রসারের জন্য এই ধারণাকে একটি নিয়মিত ইভেন্টে রূপান্তরিত করে। জুন ২০২১ পর্যন্ত এই ধরনের প্রায় ৪৭টি ইভেন্টের আয়োজন করা হয়, যেখানে প্রায় ৫ হাজার ৪২৩টি শিশু পুষ্টি পরিষেবা পেয়েছে এবং ৬ হাজার ৬৫০ জন মাকে মনিমিক্সের উপকারিতা ও পুষ্টির ঘাটতিজনিত বিভিন্ন স্বাস্থ্যগত সমস্যা–সম্পর্কিত বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে।
বর্তমানে এসএমসি জিএমপি পরিষেবাগুলোর যথাযথ প্রয়োগ, ব্যবহার ও সম্প্রসারণে ব্লু-স্টার সেবা প্রদানকারীর উদ্যোগে পরিচালিত এই ধরনের সমাবেশের আয়োজন এবং সফল বাস্তবায়নে অন্যান্য ব্লু-স্টার সেবাদানকারীকে উদ্বুদ্ধকরণে বিশেষ মনোযোগ দিচ্ছে।

পুষ্টি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন