বক্তব্যের মূল উদ্দেশ্য বুঝিয়ে বলা

কোনো মিটিং বা প্রেজেন্টেশনে অথবা কোথাও উপস্থাপনা করতে গেলে আমরা অনেক সময়ই ঘাবড়ে যাই। অন্যকে কিছু বলার আগে বক্তব্যটির উদ্দেশ্য বা প্রসঙ্গ উল্লেখ করলে ভালো। উদাহরণস্বরূপ, একটি মিটিং শুরু করার আগে সেটার উদ্দেশ্য কী এবং সেশনটি কতক্ষণ হতে পারে, সেই ব্যাপারে অন্যদের ধারণা দিলে সুবিধা হবে। এতে অন্যরাও তাঁদের শিডিউল ও মিটিংয়ের মূল ফোকাস মাথায় রেখে কাজ করতে পারবে।

default-image

উচ্চারণ ও ব্যাকরণ ঠিক রাখা

ভুল উচ্চারণ আর অদ্ভুতুড়ে ভাষারীতির ফেসবুকীয় মিম গুনে শেষ করা যাবে না। নিজেকে সেই কাতারে না ফেলে সঠিকভাবে শিখে নিতে হবে বাংলা-ইংরেজি উচ্চারণ ও ব্যাকরণ। আঞ্চলিক শব্দ ফরমাল অফিস আবহে এড়িয়ে চলতে হবে।

খুব ভারী শব্দ ব্যবহার না করা

অনেক শব্দই আছে, যেগুলো সাধারণভাবে সবার বুঝতে অসুবিধা হতে পারে। তাই নিজের কথাগুলো সহজবোধ্য শব্দের গাঁথুনিতেই সাজাতে হবে। দিনের কিছু অংশ শব্দসম্ভার সমৃদ্ধ করার কাজে ব্যয় করতে হবে। প্রাত্যহিক কথায় শুনতে সহজবোধ্য ও কার্যকর শব্দের ব্যবহার করা অনুশীলন করতে হবে।

default-image

শব্দের পুনরাবৃত্তি এড়ানো

কথা বলার সময় খুব কম মানুষই এত নিয়ম মেনে চলতে পারে। তবে বাক্যে একই শব্দের পুনরাবৃত্তি শুনলে অপর পক্ষ বিরক্তবোধ করতে পারে। সে ক্ষেত্রে প্রতিশব্দ কিংবা সর্বনাম ব্যবহার করতে হবে। লেখার মতো কথা বলার সময়েও সঠিক সময় সঠিক বিরামচিহ্ন ব্যবহার করতে হবে। ‘চলো, বাবা খাই’ আর ‘চলো বাবা, খাই’-এর মধ্যে কিন্তু বিস্তর ফারাক।

অতিকথন এক নীরব ঘাতক

যেকোনো প্রাণবন্ত কথোপকথনের অকাল মৃত্যু ঘটাতে পারে যেকোনো একটি বিষয় নিয়ে অতিরিক্ত ব্যাখ্যা বা তথ্য দিতে যাওয়ার ফলে। কোনো বিষয় সম্পর্কে অতিকথন এড়ানো উচিত। এর জন্য কোনো প্রেজেন্টেশনের আগে মূল বক্তব্য অনুশীলন করে নেওয়া উচিত। মিটিংয়ের আগে প্রস্তুত করে নেওয়া উচিত লিখিত খসড়া।

default-image

মূল বিষয়টি ঠিক রাখা

যেকোনো বক্তব্যে বা কথোপকথনে অহেতুক খুব বেশি বিষয়ের অবতারণা করলে মূল পয়েন্টটি ফোকাস হারাবে। তাই কৌশলে মূল পয়েন্টটি দিয়ে শুরু করে কায়দামতো তার পুনরাবৃত্তি করেই প্রেজেন্টেশন শেষ করলে ভালো। মূল যুক্তিগুলোর উপস্থাপনা হতে হবে পরিষ্কার ও বাহুল্যবর্জিত।

আয়নার সামনে অনুশীলন করা

default-image

সবার সামনে কথা বলাটা যতটা সহজ দেখায়, আসলে ততটা সোজা নয়। বিখ্যাত অনেক বক্তা আয়নার সামনে অনুশীলন করার ব্যাপারে পরামর্শ দিয়ে থাকেন নিজেকে তৈরি করতে। সেই সঙ্গে অপর দিকে যিনি আছেন, তাঁর চোখে চোখ রেখে বেশির ভাগ কথা বললে ভালো। আত্মবিশ্বাসী বডি ল্যাঙ্গুয়েজ যেকোনো বক্তব্যের প্রভাব বাড়িয়ে দিতে পারে। আর এর জন্যও আয়না ভালো কাজে দেয়।

ছবি: পেকজেলসডটকম

যাপন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন