বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয় ভাগের উপস্থাপনায় ছিল ফ্ল্যাশ ফ্যাশন শো। ১৭ জন দেশি ডিজাইনারের তৈরি পোশাক ছিল আগ্রহের কেন্দ্রে। দ্বিতীয় দিনে উপস্থাপন করা পোশাকেও ছিল চিরায়ত সিল্কের চমক। আর শীতের সংগ্রহ বলেই জ্যাকেট, লম্বা কোট বা কটির ব্যবহার দেখা গেছে বেশি। শাড়ি, কামিজ, লম্বা জামা আর স্কার্টেও ছিল ফিউশন। আবার পাশ্চাত্যের ফ্যাশনে ভাগ না বসিয়ে একেবারে দেশীয় ঢং ও সাজে পোশাক উপস্থাপন করেছেন ডিজাইনার এমদাদ হক।

default-image

আয়োজনের দ্বিতীয় দিনে সিল্কের পোশাকে হাতে সেলাই নকশিকাঁথা ও প্যাঁচওয়ার্কের ব্যবহার ছিল বেশি। ছিল দেশীয় উৎসবের রঙের আধিপত্য। এছাড়া শাড়ি ও কামিজের পাশাপাশি ছিল জাম্পস্যুট কাটিংয়ের পোশাক, প্লাজো ও কাফতান। ছিল কালো, মেরুন, লাল, কমলা, হালকা সবুজ, হালকা গোলাপি, নীল ও বাদামি রঙের সিল্ক পোশাকের ঝলক।

default-image

প্রথম দিন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

ফ্যাশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন