পাঁচ সেকেন্ডে একটি করে বিক্রি হয় যে বিউটি পণ্য

টিকটক!

এই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের নামটা শুনে আপনি যতই নাক সিঁটকান না কেন, টিকটকে অগ্রাহ্য করা দায়। তরুণদের মধ্যে, বিশেষ করে জেন জিয়ের মধ্যে (১৮ থেকে ২১) সবচেয়ে জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের নাম টিকটক। বিউটি পণ্য বেচে নেওয়ার জন্যও অনেকেই চোখ রাখেন টিকটকে। আপনি হয়তো ফেসবুকে পোস্ট দেওয়ায় ব্যস্ত ছিলেন, ইনস্টাগ্রামে ফলো করছিলেন পছন্দের তারকাদের অথবা অস্কারের মঞ্চে উইল স্মিথ এ কী করলেন, সেই বিষয়ে মতামত পড়ছিলেন, এরই এক ফাঁকে ব্রিটিশ ভেগান (কেবল উদ্ভিজ্জ উপাদানে তৈরি পণ্য) স্কিনকেয়ার ব্র্যান্ড লাভ মিমিমি ঝড় তুলেছে টিকটকে। বলা হচ্ছে, এটিই এই মুহূর্তে তরুণদের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় স্কিনকেয়ার ব্র্যান্ড। প্রতি পাঁচ সেকেন্ডে এই স্কিনকেয়ার ব্র্যান্ডের একটি করে পণ্য বিক্রি হচ্ছে।

হঠাৎ করেই দারুণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে লাভ মিমিমি নামের এই বিউটি ব্র্যান্ড
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে

লাভ মিমিমি ব্যান্ডের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য আছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি যেটি জনপ্রিয়, সেটি হলো এই ব্র্যান্ডের সব পণ্যের মূল্য ২০ ডলারের মধ্যে। অর্থাৎ আপনি এখান থেকে যা–ই কিনুন, বাংলাদেশি টাকায় তার দাম ১ হাজার ৭২৪ টাকার বেশি হবে না (১ ডলার ৮৬ টাকা ২২ পয়সা ধরে)। দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য হলো, এই পণ্যের প্যাকেজিং ‘পরিবেশবান্ধব’। মানে পণ্য ব্যবহারের পর যা কিছু আপনি ফেলে দেবেন, সেগুলো পরিবেশের কোনো ক্ষতি করবে না। এগুলো রিসাইকেল করে আবার ব্যবহার করা যাবে।

এই ব্র্যান্ডের সব পণ্যের মূল্য ২০ ডলারের মধ্যে
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে

ময়েশ্চারাইজার, বডি ক্রিম, ফেস্ক মাস্ক, বডি বাটার—যা–ই আপনি ব্যবহার করুন না কেন, সবকিছুই প্রাকৃতিক উপাদানে তৈরি। কী আছে এখানে? হাইড্রেটিং ফেস মাস্কের মূল উপাদান কাঠবাদাম তেল। এখানে আরও আছে ভিটামিন এ, সি, ই ও ত্বক সুন্দর রাখার কিছু বাড়তি উপকরণ। ময়েশ্চারাইজারটা খুবই হালকা, খুব দ্রুতই ত্বকের সঙ্গে মানিয়ে নেয়। তাই এই ময়েশ্চারাইজারকে আপনি একটা প্রাইমার হিসেবে ব্যবহার করতেই পারেন। মুখের ছোট ছোট দাগ হওয়া দূর করতে আর উজ্জ্বলতা বাড়াতে এর তুলনা নেই। সূর্যের আলোর ক্ষতি থেকেও বাঁচাবে এটি।

ঠোঁটের যত্নে লিপ বামসহ নানা পণ্যও আছে এই ব্র্যান্ডের
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে

ঠোঁটের যত্নে লিপ বামসহ নানা পণ্য আছে এখানে। আরও আছে বডি বাটার। যেটা গোসল সেরে সারা গায়ে মাখবেন। শীতে ত্বকের যত্নের জন্য আছে বিশেষ পণ্য।