নারীদের জন্য লা রিভের ট্রেন্ডসেটিং ফ্যাশন লেবেল নার্গিসাস
নারীদের জন্য লা রিভের ট্রেন্ডসেটিং ফ্যাশন লেবেল নার্গিসাসছবি: নার্গিসাস

নার্গিসাস। শব্দটির মধ্যে অদ্ভুত ব্যঞ্জনা আছে। শব্দটা নজরুলের একটি গানের প্রথম লাইন মনে করিয়ে দেয়—বুলবুলি নীরব নার্গিস বনে। নার্গিস আসলে একটি ফুল। ইরানে শীত শেষে বরফ গলার পর সেই পানি গড়িয়ে নামে সমতলে। স্রোতস্বিনীর ধারেই জন্ম হয় নার্গিসের।

default-image

আনতমুখ নার্গিসকে দেখে মনে হয় স্বচ্ছ্বতোয়া জলে নিজেই যেন নিজের ছায়া দেখছে নির্নিমেষ। এই প্রসঙ্গে মনে পড়ে যায় নার্সিসাসের কথা। গ্রিক পুরানের বর্ণিত ফুল নার্সিসাস। এই ফুলের জন্মকাহিনির সঙ্গে জড়িয়ে আছে এক সুদর্শন যুবকের নাম, যে মুগ্ধ ছিল আপন সৌন্দর্যে।

বিজ্ঞাপন

নার্গিস থেকে নার্সিসাস পর্যন্ত অনেক কথা হলো। যেখানে মূল বিষয়টিই আসলে সৌন্দর্য। এই সৌন্দর্যের রেশ ধরে এবার আসা যাক নার্গিসাস প্রসঙ্গে। নার্গিসাস একটি নতুন ফ্যাশন লেবেল। দেশের অন্যতম শীর্ষ ফ্যাশন ব্র্যান্ড লা রিভ ৮ এপ্রিল লঞ্চ করতে চলেছে এই নতুন লেবেল: নার্গিসাস বাই লা রিভ। লেবেলটি নারীদের জন্য।

default-image

যেকোনো বয়সী নারীর জন্য বললে ভুল হবে না। যদিও তরুণীরাই মূল লক্ষ্য। ঈদ সংগ্রহ দিয়েই শুরু হচ্ছে নার্গিসাসের অভিযাত্রা। লা রিভের প্রধান নির্বাহী পরিচালক মুন্নুজান নার্গিস কয়েক দিন আগে তাঁর স্বপ্নসন্তান নার্গিসাসকে বর্ণনা করলেন মাত্র তিনটি শব্দে: বিউটি, প্যাশন, লাভ। সংক্ষিপ্ত হলেও গভীর দ্যোতনাময়।

মুন্নুজান নার্গিস নিজের অফিসে বসে সেদিন জানালেন নার্গিসাসের জন্মের ইতিকথা। দেখালেন সংগ্রহের ছবি ও ভিডিও। বললেন, মানুষ যেন নিজের স্বপ্নকে ধারণ করতে পারে, সেই ধারণা থেকেই সৃষ্টি হয়েছে লা রিভের। দেখতে দেখতে এই ব্র্যান্ড এক দশকের বেশি সময় পার করে ফেলেছে।

default-image

এরই মধ্যে ফ্যাশন অনুরাগীদের অপরিমেয় ভালোবাসাও পেয়েছে। দেশজুড়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে লা রিভ। এই পথচরায় লা রিভ ভক্তদের বিশেষ চাহিদাও আমরা জেনেছি। লা রিভের কাছে তাঁরা তাঁদের প্রত্যাশার কথা বলেছেন। সেই প্রত্যাশার স্বরূপও আমরা অনুধাবন করার চেষ্টা করেছি।

বিজ্ঞাপন

একটু থেমে প্রসঙ্গের রেশ রেখেই নার্গিসাস প্রসঙ্গে এলেন মুন্নুজান নার্গিস। তিনি বললেন, ‘আমরা আমাদের লয়্যাল ক্লায়েন্টদের চাহিদার বিষয়টি নিয়ে বিশদে ভেবেছি। জরিপ করেছি। তাঁদের মনোভাব বোঝার চেষ্টা করেছি। এসবই একটি নতুন লেবেল বাজারে আনার ক্ষেত্রে অনুঘটক হয়েছে। তবে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়েই আমরা নতুন একটি লেবেল নিয়ে আসার সিদ্ধান্ত নিই। সেই অনুযায়ী পরিকল্পনা করা হয়। তারই বাস্তব রূপ এই নার্গিসাস।’

default-image

তিনি স্পষ্ট করেছেন যে নার্গিসাস কোনো সাবব্র্যান্ড বা ব্র্যান্ড আন্ডার আ ব্র্যান্ড নয়; বরং এটা একটা লেবেল। হাই এন্ড ফ্যাশন লেবেল। নির্দিষ্ট মার্কেট সেগমেন্টের জন্য।

এই লেবেলকে ঘিরে আলাদা করে ব্র্যান্ডিং কৌশল সাজানো হয়েছে। এর ব্র্যান্ড ইউনিভার্স লা রিভের থেকে একেবারেই আলাদা। গোটা আয়োজনেই সেটা প্রতীয়মাণ। নার্গিসাস শব্দটির টাইপোগ্রাফি থেকে ব্র্যান্ড কালার (কালো জমিনে গোলাপি ফুল। সাদা অক্ষরে লেখা নার্গিসাস), হ্যান্ডট্যাগসহ বিপণনের সবকিছু। এমনকি প্রতিটি স্টোরেই থাকছে আলাদা কর্নার। সেই অংশের সজ্জায় লা রিভের মধ্যে থেকেও আলাদা করা যাবে নার্গিসাসের ভিজ্যুয়াল মার্চেন্ডাইজিংকে।

default-image

এবার আসা যাক নার্গিসাসের সংগ্রহে। ঈদ সংগ্রহ দিয়েই শুরু হচ্ছে; ঈদ এবার ভরা গ্রীষ্মে। আমাদের দেশের গরমেরও একটা বৈশিষ্ট্য আছে। ঊর্ধ্বমুখী তাপমাত্রা, ভ্যাপসা গরম, অধিক আর্দ্রতায় নাভিশ্বাস ওঠে সবার। এ সময় প্রয়োজন আরামদায়ক পোশাক। বায়ুচলাচলে সক্ষম মোলায়েম কাপড়, প্রশান্তিময় রং; এসব বিবেচনায় রাখা হয়েছে। আবার উৎসবের আমেজও তো উপেক্ষা করা যাবে না। অতএব উভয় বিষয়কে সমন্বয় করেই তৈরি করা হয়েছে নার্গিসাসের সূচনাসংগ্রহ তথা ঈদ সংগ্রহ।

এ জন্য গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে কাপড়, ডিজাইন এলিমেন্ট, প্রিন্ট, স্টিচিংসহ প্রতিটি ক্ষেত্রে। নিশ্চিত করা হয়েছে প্রতিটি পণ্যের মান। চলতি গ্রীষ্মের আন্তর্জাতিক কালার ট্রেন্ডের সঙ্গে বাংলাদেশে ক্রেতাদের রং ও অনুরাগের মিল রেখেই তৈরি হয়েছে এই সংগ্রহ। যেখানে প্যাস্টেলের নানা শেডের উপস্থিতি নিশ্চিত করে দৃষ্টিসুখ। কিছু মৌলিক রঙের পাশাপাশি মিশ্র রঙের নান্দনিক উপস্থাপনাও উল্লেখের দাবি রাখে। এই প্যালেটে স্থান করে নিয়েছে বেজ, ক্রিম, সাদা, লেমন, সোনালি, পিচ, গোলাপি, বেগুনি, নীল, ফিরোজা ও হলুদ।

default-image

মিনিমালিস্টিক ধারণাকে প্রাধান্য দিয়ে, উচ্চ বৃত্তের জন্য তৈরি এই সংগ্রহে ব্যবহার করা হয়েছে পিওর মসলিন, সাটিন-ভিসকস, সিল্ক, শিফন, টিস্যু, অরগাঞ্জা, ফেইলি ও সেলুলোজবেজড ফেব্রিক।

বিজ্ঞাপন

কাপড় পেয়েছে সবিশেষ গুরুত্ব, ছোট্ট করে যোগ করেন মুন্নুজান নার্গিস।
পোশাকের সৌন্দর্যবর্ধনে নানা ধরনের নিরীক্ষা দৃষ্টিগোচর হয়েছে এই কালেকশন নিয়ে তৈরি প্রেজেন্টেশন দেখতে দেখতে। জমিন অলংকরণে স্ক্রিন প্রিন্ট আর ডিজিটাল প্রিন্ট ছাড়াও ব্যবহার করা হয়েছ টাই-ডাই। আবার কিছু পোশাকে জারদোজি, কারচুপি ও অন্যান্য হ্যান্ড এমব্রয়ডারি যোগ করেছে উৎসবপোশাকের বাড়তি গ্ল্যামার।

default-image

তবে ভ্যালু অ্যাডিশনের আধিক্যে কাপড়ের মূল সৌন্দর্য বিনষ্ট করা হয়নি। বরং পরিমিত ব্যবহার পোশাককে দিয়েছে আভিজাত্য। সঙ্গে মাত্রা যোগ করেছে টায়ার, ফ্লেয়ার, র‌্যাফল, ড্রেপ ও ফ্রিল।

এই সংগ্রহে মূল খেলাটা হয়েছে কাট ও প্যাটার্নে। ওয়েস্টার্ন পোশাকের পাশাপাশি উপমহাদেশীয় ঐতিহ্যবাহী পোশাকের সমসাময়িক উপস্থাপনা মুগ্ধ করবে। চলমান ট্রেন্ড অনুসৃত নার্গিসাসের ঈদ সংগ্রহের প্রতিটি পোশাকের শিলুয়েট চোখে পড়ার মতো।

এসব পোশাক পরা যাবে যেকোনো উৎসব ও অনুষ্ঠানে। পার্টির পোশাক হিসেবে আমাদের ধরাবাঁধা চিন্তাকে বাতিল করে দেয় নার্গিসাস। বরং স্নিগ্ধ রঙের এসব পোশাক পার্টিপোশাককে নতুনভাবে অর্থবহ করে তোলে। কেবল পার্টি নয়; পরা যাবে বিয়ে, গেট টুগেদার, রাত্রি ও সান্ধ্য আয়োজন এমনকি রেড কার্পেটেও। এই সংগ্রহে আছে সেলিব্রেটি-স্টাইলড সারারা ও কামিজ, পার্টি গাউন, লং টিউনিক ও শ্রাগ, ড্রেপড টিউনিক, স্কার্ট-টপ, স্কার্ট-পালাজ্জো, এক্সট্রা লেংথের কামিজের সঙ্গে সালোয়ার, পেপলাম টপ, সিঙ্গল কামিজ। দোপাট্টাগুলোয়ও আলাদা নজর দেয়া হয়েছে।

default-image

মিক্স-ম্যাচ করেও পরা যাবে। কিছু কিছু পোশাকের জন্য আলাদা করে বটম রাখা হচ্ছে না; সে ক্ষেত্রে পছন্দসই বটম লা রিভ থেকেই নিয়ে নেওয়া যাবে বলে জানালেন প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী পরিচালক।

কাট ও প্যাটার্ন, রং, জমিন অলংকরণ ও তৈরি—প্রতিটি ধাপে সৃজনশৈলী আর উপকরণ ব্যবহারে যথাযথ মনোযোগ পোশাকগুলোকে দিয়েছে নিখুঁত অবয়ব। ফলে পরিধানকারী অনায়াসেই হয়ে উঠবেন অনন্য। বুলিয়ে যাবে অন্যের সপ্রশংস দৃষ্টি। চাকচিক্যের বাহুল্যবর্জিত ও পরিশীলিত পোশাকগুলো যে কাউকে করে তুলবে আভিজাত্যময় অথচ নির্মল সুন্দর।

default-image

যে ধরনের এবং মানের পোশাকের জন্য আমাদের অনেকেই ছোটেন বিদেশে, সেই পোশাকই এখন হাতের নাগালে এনে দিয়েছে নার্গিসাস। আগেই উল্লেখ করেছি এই সংগ্রহ কেবল নারীর জন্য। ফলে লা রিভের পুরুষ অনুরাগীদের কিঞ্চিৎ ঈর্ষা হতেই পারে!

বস্তুত মানুষ নিজেকেই সবচেয়ে বেশি ভালোবাসে। অসনে, বসনে, সজ্জায় নিজেকে প্যামপার করতে পছন্দ করে। করেও। নিজেকে সাজাতে তাই সবচেয়ে ভালোটাই খোঁজে।

default-image

নার্গিসাস দেশের ফ্যাশন অনুরাগীদের জন্য দিচ্ছে সেই ভালোর সন্ধান; যা পরে কেবল নিজের সৌন্দর্যে নিজেই মুগ্ধ হবেন না, বরং অন্যের প্রশংসাও পাবেন। উৎসবে নিজেকে যাঁরা ট্রেন্ডি আর স্মার্ট লুকে অনন্য হয়ে উঠতে চান, তাঁদের জন্য এবারের ঈদ হতে পারে অন্য রকম। অন্তত নার্গিসাসের ট্রেন্ডসেটিং কালেকশানের কল্যাণে। তখন আর ইকবালের কবিতার মতো নার্গিস ফুলকে এক জোড়া মুগ্ধচোখের জন্য দীর্ঘ প্রতীক্ষার প্রয়োজন পড়বে না; বরং নার্গিসাসে অনিন্দ্যসুন্দর নারী নজর কাড়বে যে কারো।

ফ্যাশন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন