তাই সারা বিশ্বেই ডায়াবেটিক রোগীরা রোজা রাখার আগে ডাক্তারের পরামর্শ নেন। তাতে তাঁরা সুস্থভাবে রোজা পালন করতে পারেন। রোজার সময় ডায়াবেটিক রোগীরা সকালের সব ওষুধ সন্ধ্যার সময় খাবেন। পানি দিয়ে ইফতার করে তারপর ওষুধ খেয়ে বাকি খাবারগুলো খাবেন। আর রাতের ওষুধ বা ইনসুলিন অর্ধেক হয়ে চলে যাবে সাহ্‌রির সময়। তিন বেলার ওষুধ আমরা রোজাদারদের দুই বেলা করে সেবনের পরামর্শ দিই। তাঁর শারীরিক অবস্থা যদি বেশি খারাপ হয়, তাহলে আরেকটা ওষুধ রাত ১০টার সময় খেতে বলি।

default-image

ডায়াবেটিক রোগীরা রোজা রাখলেও অন্য দিনের মতো ক্যালরিযুক্ত খাবারই খাবেন। দিনে যেহেতু সুযোগ থাকে না, তাই রাতের বেলা অর্থাৎ ইফতারের পর থেকে প্রচুর পানি পান করতে হবে। রোজা অবস্থায় আলাদা কোনো ব্যায়াম করার দরকার নেই। নির্ধারিত নামাজ আদায় করলেই হবে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা হলো ডায়াবেটিক রোগীর রোজা রাখার প্রস্তুতির সময়ই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

মন্তব্য করুন