বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ডায়াবেটিস রোগী রোজা রাখলে ইনসুলিনের পরিমাণ ও সময়সূচি সমন্বয় করতে রোজার আগেই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করা উচিত। যাঁরা দুই বেলা প্রাকমিশ্রিত ইনসুলিন নিচ্ছেন, তাঁরা সকালের সমপরিমাণ ইনসুলিন ইফতারের সময় নেবেন। রাতের ইনসুলিনের ডোজ অর্ধেক কমিয়ে সাহ্‌রির সময় নেবেন। যাঁরা স্বল্প সময়ে ক্রিয়াশীল (শর্ট অ্যাক্টিং) ইনসুলিন তিন বেলা খাওয়ার আগে নিচ্ছেন, তাঁদের দুপুরের ইনসুলিন রোজার সময় না নিলেও চলে। সকালের সমপরিমাণ ইনসুলিন ইফতারের সময় নেবেন। আর রাতে নেওয়া ইনসুলিন অর্ধেক মাত্রায় কমিয়ে সাহ্‌রির আগে নেবেন।

সাধারণত লং অ্যাক্টিং বা ব্যাসাল ইনসুলিন, যা রাতে একটি নির্দিষ্ট সময় নেওয়া হয়, তার সময় ও মাত্রা পরিবর্তনের প্রয়োজন হয় না।

ইফতারের আগে রক্তে শর্করা কমে যাওয়ার ঝুঁকি সবচেয়ে বেশি। আবার ইফতারের দুই ঘণ্টা পর বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা বেশি। নিয়মিত রক্তে গ্লুকোজ পরীক্ষা করে যদি দেখা যায় মাত্রা অনেক বেশি, তবে ইনসুলিনের মাত্রা বাড়াতে হবে। আর যদি গ্লুকোজের মাত্রা কাঙ্ক্ষিত মাত্রার নিচের দিকে অবস্থান করে, তাহলে ইনসুলিন কমাতে হবে।

লে. কর্নেল ডা. নাসির উদ্দিন আহমদ, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ, সিএমএইচ, ঢাকা

সুস্থতা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন