টুকটাক কিছু পদ্ধতি জানা থাকলে জীবন সহজ হয়ে যায়
টুকটাক কিছু পদ্ধতি জানা থাকলে জীবন সহজ হয়ে যায়অলংকরণ: রাকিবুর রহমান

টুকটাক কিছু পদ্ধতি জানা থাকলে জীবন সহজ হয়ে যায়। এই ব্যাপক ব্যস্ত জীবনে এসব টিপস আপনাকে কিছুটা হলেও শান্তি দেবে। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু দরকারি কিন্তু সহজ টিপস।

টিপস

১. কোনো কারণে ঘর বন্ধ থাকতেই পারে বেশ কিছুদিন। আর ঘর বন্ধ থাকলে একধরনের ভ্যাপসা গন্ধ হয়। সে গন্ধে দম বন্ধ হয়ে আসে। এ দমবন্ধ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে দু-তিনটি দেশলাইয়ের কাঠি জ্বালিয়ে দিন। অথবা ঘরের বিভিন্ন জায়গায় কয়েকটি মোমবাতি জ্বালিয়ে দিন। অল্প সময়েই ঘর থেকে গন্ধ চলে যাবে।

default-image

২. কাঠের আসবাবের রং ফ্যাকাশে হয়ে গেছে? কোনো চিন্তা নেই। বাড়িতে চা–পাতা আছে নিশ্চয়ই। চা-পাতা পানিতে ফুটিয়ে ঠান্ডা করে নিন। সে ঠান্ডা পানি দিয়ে কাঠের আসবাবে পলিশ করুন। আবার ঝকঝকে হয়ে উঠবে।

বিজ্ঞাপন

৩. টেবিল, ক্যাবিনেট বা এ রকম যেসব আসবাবের ড্রয়ার আছে, সেগুলোর ড্রয়ার আটকে যাওয়ার ঘটনা ঘটে হরহামেশাই। চিন্তা করবেন না। ড্রয়ারের ধারগুলোতে মোম ঘষে রাখুন মাঝেমধ্যে। দেখবেন সহজে আর আটকাচ্ছে না আপনার ড্রয়ার।

default-image

৪. ফ্রিজের গায়ে দাগ পড়ে যায় বিভিন্ন কারণে। কোনো চিন্তা করবেন না। সে দাগ তোলার দাওয়াই আপনার ঘরেই আছে। এক টুকরা স্পঞ্জে টুথপেস্ট লাগিয়ে নিন। তারপর দাগে ঘষুন। দাগ উঠে যাবে।

৫. জানালার কাচে দাগ দেখে মন খারাপ হতেই পারে। তবে দাগ তোলার টিপস জানা থাকলে মন খারাপ হবে না। এক কাজ করুন, ফ্লানেল কাপড়ের টুকরা গ্লিসারিনে ভিজিয়ে দাগ ধরা জানালার কাচে ঘষুন। তারপর দেখুন ম্যাজিক। শুধু কাচ কেন? একই পদ্ধতি কাঠ বা স্টিলের টেবিলের ওপরও প্রয়োগ করে দেখুন। দাগের বংশ হয়ে যাবে ধ্বংস।

৬. ঘরের বিভিন্ন জায়গার কাচগুলো একটু ঘোলাটে লাগছে, তা–ই তো? মিহি চকগুঁড়ার সঙ্গে পানি আর স্পিরিট অথবা কেরোসিন মিশিয়ে নিয়ে কিছুক্ষণ কাচের ওপর মাখিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে খবরের কাগজ দিয়ে মুছে নিন। দেখবেন ঘোলা কাচ আবার যৌবন ফিরে পেয়েছে।

৭. বাথরুমের টাইলস ময়লা হয়ে যাওয়াটা খুব সাধারণ বিষয়। ঘরে ডিটারজেন্ট থাকতে চিন্তা কী! শুধু কষ্ট করে ডিটারজেন্টের সঙ্গে একটি লেবুর রস আর এক চামচ ফিনাইল মিশিয়ে নিন। তারপর বাথরুমের টাইলস ঘষুন। মন ভালো হয়ে যাওয়ার মতো পরিষ্কার হবে।

৮. থালাবাসনে যদি কোম্পানির স্টিকার থাকে তাহলে তো আর খাওয়া যায় না। তাই সেটাকে তুলে ফেলতে হয়। স্টিলের বাসন থেকে যদি স্টিকার তুলতে চান, তাহলে বাসনের স্টিকার লাগানো অংশের উল্টো পিঠ আগুনে হালকা তাতিয়ে নিন। তারপর দেখুন কত সহজে স্টিকার উঠে যায়।

বিজ্ঞাপন

৯. নতুন কেনা জিনিসের ওপর নানা ধরনের লেবেল লাগানো থাকে। সেসব লেবেল তুলতে অযথাই খোঁচাখুঁচি করবেন না। সহজ সমাধান হলো লেবেলের ওপর এক টুকরা স্কচটেপ লাগিয়ে তার অন্য প্রান্ত ধরে আস্তে করে টান দিন। লেবেল উঠে যাবে।

১০. কত কারণেই না দেয়ালে পেরেক মারতে হয়। আর পেরেক মারতে গিয়ে উঠে যায় দেওয়ালের প্লাস্টার। যদি দেয়ালে পেরেক মারতেই হয়, তাহলে পেরেকগুলো ফুটন্ত গরম পানিতে ডুবিয়ে নিন। অথবা যেখানে পেরেক মারবেন সে জায়গা টেপ দিয়ে ঢেকে দিয়ে আরামসে দেয়ালে পেরেক মারুন। প্লাস্টার খসবে না।

১১. ঘরে মরিচা ধরার মতো কত কিছুই না থাকে। এই ধরুন প্লায়ার্স, কাটারি, স্ক্রু ড্রাইভার—এ রকম কত কী। এগুলোকে একটি বাক্সে রেখে দিন। তারপর বাক্সটিতে ভালো করে মুখ বন্ধ করা একটি ছোট্ট শিশিতে কর্পূর ভরে রেখে দিন। যন্ত্রপাতিতে মরচে পড়বে না।

১২. ডিপ ফ্রিজ খালি করে ডি–ফ্রস্ট করে তা রেখে নিশ্চিন্তে গেছেন সপ্তাহখানেকের জন্য ঘুরতে। ফিরে দেখলেন আপনার ডিপ ফ্রিজে দুর্গন্ধ হয়ে গেছে। মেজাজ খারাপ না করে বেড়াতে যাওয়ার আগে ফ্রিজে পাতিলেবু রেখে দিন। ফিরে এসে আর দুর্গন্ধ শুঁকতে হবে না।

১৩. ফ্রিজের বাজে গন্ধ দূর করার আরেকটি টিপস দেওয়া যাক। ছোট প্লেট বা বাটিতে কিছু শর্ষেগুঁড়া পানি দিয়ে ভিজিয়ে সারা রাত ফ্রিজে রাখুন। ফ্রিজের দরজা খোলা রাখুন সারা রাত। পরদিন আর দুর্গন্ধ পাবেন না। অথবা বিন থেকে তৈরি করা কফির গুঁড়ো রেখে দিন বন্ধ ফ্রিজে। দুর্গন্ধ থাকবে না।

default-image

১৪. প্রতিটি শহরেই এখন আছে সাইক্লিং ক্লাব। আপনিও প্রয়োজনেই কিনেছেন সাইকেল। সাইকেল কিনলেই তো হবে না, তার যত্নও করা চাই। ব্যবহারের পর বাইসাইকেলের টায়ার ভেজে কাপড় দিয়ে মুছে রাখুন। সহজে নষ্ট হবে না।

১৫. প্লাস্টিক বা কাচের বোতলের ছিপি আটকে যাওয়ার ঘটনা ঘটে সবার জীবনেই। বিরক্ত হবেন না। শুধু কষ্ট করে গরম পানিতে একটি রুমাল ভিজিয়ে নিংড়ে নিয়ে বোতলের ছিপিতে জড়িয়ে রাখুন। দেখবেন কিছুক্ষণ পর ছিপিটি আলগা হয়ে আসবে।

default-image

১৬. বেসিনের পাইপ পরিষ্কার করতে আমাদের সবারই বিরক্ত লাগে। আবার সেটা পরিষ্কারও রাখতে হয়। সহজ বুদ্ধি বাতলে দিই। ঘুমানোর আগে বেসিনের পাইপের মুখে আধ কাপের মতো ভিনেগার ঢেলে দিন। সকালে পানি ঢেলে দিলেই বেসিনের পাইপ পরিষ্কার থাকবে।

১৭. রান্নাঘরের সিঙ্কের মুখ বন্ধ হয়ে যায় না মাঝেমধ্যে? বন্ধ মুখ ছড়ানোর সহজ পদ্ধতি কী জানেন? লবণ পানিতে ফুটিয়ে সিঙ্কের মুখে ঢেলে দিন। পরিষ্কার হয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন