জীবনকে রেখেছেন শৃঙ্খলা ও সংযমে
জীবনকে রেখেছেন শৃঙ্খলা ও সংযমেছবি: প্রথম আলো

মাছ, ডিম সেদ্ধ, সালাদ, স্যুপ—এ রকম নানা খাবারের ছবি জায়গা করে নিয়েছে আরিফিন শুভর ইনস্টাগ্রামে। এ রকম নানা স্বাস্থ্যকর খাবার চোখে দেখতে আপনি ঘুরে আসতে পারেন এই ঢালিউড তারকার ইনস্টা নামের গ্রামের বাড়ি (পড়ুন অ্যাকাউন্ট) থেকে। ১৭ সেপ্টেম্বর একটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও দুবার মেরিল প্রথম আলো পুরস্কারজয়ী এই অভিনেতার একটি ভিডিও মুক্ত হয় ইউটিউবে। তারপর থেকে এখনো আলোচনায় সেই ভিডিও। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত শুভর ট্রান্সফরমেশন ভিডিওটি দেখা হয়েছে প্রায় ৪০ লাখ বার।

‘ট্রান্সফরমেশন, ফ্যাট টু ফিট’ শিরোনামের সেই ডকুমেন্টারিতে দেখানো হয়েছে নানা প্রতিবন্ধকতাকে সঙ্গী করে ৯৪ কেজি ওজন থেকে সিক্স প্যাক বডি বানানোর যুদ্ধযাত্রা। হলিউডের ক্রিশ্চিয়ান বেইল, ম্যাথিউ ম্যাকনহে, ড্যানিয়েল দে, ড্যানিয়েল ক্রেগ, সিলভেস্টার স্ট্যালন বা বলিউডের আমির খান, সালমান খানেরা নিয়মিত সিনেমার জন্য শরীর ভাঙেন, গড়েন। তবে ‘মিশন এক্সট্রিম’ সিনেমার চরিত্রের জন্য সিক্স প্যাক বানিয়ে উদারহণ সৃষ্টি করলেন তিনি। নিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, ব্যায়াম আর থেরাপি নিয়ে আলাপ হল ‘ছুঁয়ে দিলে মন’, ‘ঢাকা এটাক’খ্যাত এই অভিনেতার সঙ্গে।
আরিফিন শুভ ‘হাই প্রোটিন লো কার্ব’ ডায়েট মেনে চলেন। মানে শুভর খাবারের প্লেটে যা থাকে, তাতে শর্করা থাকে খুব কম, আমিষ থাকে বেশি। ‘রেড মিট’ পাতে তোলেন না শুভ। গরু আর খাসির মাংসকে টা টা বাই বাই বলেছেন বহু আগেই। মাঝেমধ্যে মুরগির মাংস খান। তাও খুবই কম। মাছ, সবজি, ডিম, বাদাম, পিনাট বাটার, সয়া, রুটি, গ্রিল, স্যুপ, সালাদ এগুলো চলে।

বিজ্ঞাপন

অস্ট্রেলিয়ায় গেলে স্যামন মাছ চাই-ই চাই শুভর। তবে সব খাবারের ভেতর সবচেয়ে প্রিয় শর্ষে ইলিশ। খাবার নিয়ে একটা প্রিয় স্মৃতির কথা জানতে চাইলে, শুভ স্মৃতি হাতড়ে চলে গেলেন অতীতে। বললেন, ‘ছোটবেলায় শীতের সকালে ভাপা পিঠা, চিতই পিঠা হতো। মা বানাতেন। আর আমরা চুলার সামনে লম্বা লাইন দিয়ে চুলা থেকে সদ্য নামানো ধোঁয়া ওঠা গরম গরম পিঠা খেতাম। এই দৃশ্যটা চোখে লেগে আছে।’

default-image

ভক্তদের জন্য খাবার নিয়ে একটা উপদেশ চাইলে এই তারকা বলেন, ‘আমরা যা খাই, সেটা যদি একটু বুঝে খাই, তাহলেই আমরা অনেক স্বাস্থ্যকর জীবন যাপন করতে পারি। ধরুন মাঝেমধ্যে একটা মিষ্টি আপনি খেতেই পারেন। মিষ্টি তো মস্তিষ্কের এনার্জি। তবে মাত্রা রেখে। ওয়ান্স ইন আ ব্লু মুন আপনার মন চাইলে গরুর মাংস খাবেন। তাই বলে ইচ্ছা হলো আর দুই প্লেট ভাত গরুর মাংস দিয়ে খেয়ে উঠলাম, তা করলে হবে না।’

একেবারে যে ভাত খান না আরিফিন শুভ, তা নয়। যখন কোন টার্গেট থাকে না, তখন মাঝেমধ্যে সকালে রুটি আর সবজিও খান তিনি। দুপুরে খান এক কাপ ভাত। সঙ্গে ডাল, সবজি ও মাছ। তবে রাতে কিছুতেই ভাত বা রুটি পাতে তোলেন না। তবে চরিত্রের প্রয়োজনে ওজন বাড়াতে হলে অন্য কথা।

default-image

শুধু যে খেতে ভালোবাসেন শুভ, তা বললে ভুল হবে। রান্নায়ও কম যান না এই অ্যাকশন হিরো। ভাত বাদে নাকি সবই রান্না করতে পারেন তিনি। ভাত রান্না তাঁর কাছে ‘জটিল’ মনে হয়। একসময় খুব ভালো মুরগি রান্না করতেন। এখন আর সেসবের সময় কই! তবে শত ব্যস্ততার মধ্যেও দুই ঘণ্টা ব্যায়াম করতে ভোলেন না শুভ। দুপুরের পর সাধারণ ব্যায়াম করেন। আর যদি কোন টার্গেট থাকে, তাহলে দিনের ছয় ঘণ্টা চলে যায় ঘাম ঝরাতে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0