>

এখন ইলিশের মৌসুম। ভাপা শর্ষে–ইলিশই তো বটেই, ইলিশ রাঁধতে পারেন নানাভাবেই। ইলিশের কয়েক পদের রেসিপি দিয়েছেন জেবুন্নেসা বেগম।

default-image

ভাপে শর্ষে ইলিশ পাতুরি

উপকরণ: ইলিশ ৬ টুকরা, কুমড়াপাতা ৬টি, শর্ষেবাটা ২ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচবাটা আধা চা–চামচ, লবণ পরিমাণমতো, মরিচগুঁড়া আধা চা–চামচ, হলুদগুঁড়া আধা চা–চামচ ও শর্ষের তেল ২ টেবিল চামচ।

 প্রণালি: কুমড়ার পাতা সামান্য লবণ দিয়ে মেখে রাখুন। ইলিশের টুকরার সঙ্গে সব উপকরণ মেখে নিন। এবার প্রতিটি পাতার ভেতর একটা করে ইলিশের টুকরা দিয়ে পাতা ভাঁজ করে নিন। যদি কুমড়ার পাতা ছোট হয় তাহলে দুটো পাতা দিয়ে মুড়িয়ে নিন। চুলায় একটি পাতিলে পানি গরম করতে দিয়ে অপেক্ষা করুন। পানিতে একটু বলক এলে তার ওপর একটি পাত্র বসিয়ে মাছ মোড়ানো কুমড়াপাতা রাখুন। এবার ১০ মিনিট ভাপ দিলেই তৈরি হয়ে যাবে ভাপে শর্ষে ইলিশ পাতুরি।

default-image

ইলিশের শামি কাবাব

উপকরণ: ইলিশ মাছের পেস্ট ১ কাপ, বুটের ডাল এক কাপের চার ভাগের এক ভাগ, ফেটানো ডিম অর্ধেকটা, গরমমসলাগুঁড়া আধা চা–চামচ, কাঁচা মরিচকুচি ২ টেবিল চামচ, গোলমরিচগুঁড়া আধা চা–চামচ, লবণ স্বাদমতো ও পেঁয়াজকুচি ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি: ইলিশের মাথা মাঝখান বরাবর লম্বা ফালি করে কাটুন। এবার মাঝখানের কাটা ফেলে দিন। ছোট টুকরা করে গ্রাইন্ডারে পেস্ট করে নিন। বুটের ডাল কয়েক ঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে সেদ্ধ করে গ্রাইন্ডারে অথবা পাটায় বেটে নিন। লক্ষ রাখবেন পানি যেন না থাকে।

মাছের পেস্টের সঙ্গে বাটা বুটের ডাল, পেঁয়াজকুচি, কাঁচা মরিচকুচি, লবণ, গরমমসলাগুঁড়া, গোলমরিচগুঁড়াসহ সব উপকরণ মেখে নিন। এবার ১টি ডিম ফেটে অর্ধেকটা মাছের পেস্টের সঙ্গে মিশিয়ে হাতের তালুতে তেল মেখে ছোট ছোট কাবার আকারে তৈরি করুন। এবার ডুবো তেলে ভেজে নিন।

default-image

কচুরমুখিতে ইলিশ

উপকরণ: কচুরমুখি আধা কেজি, ইলিশের টুকরা ৬টি, পেঁয়াজকুচি ২ টেবিল চামচ, রসুনবাটা ১ চা–চামচ, হলুদগুঁড়া ১ চা–চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা–চামচ, লবণ পরিমাণমতো, জিরাগুঁড়া আধা চা–চামচ, ধনেগুঁড়া আধা চা–চামচ ও তেল দেড় টেবিল চামচ।

প্রণালি: কচুরমুখি দুই টুকরা করে কেটে রাখুন। ইলিশের টুকরায় লবণ ও হলুদগুঁড়া মেখে ভেজে নিন। ভাজা তেলে পেঁয়াজকুচি, রসুনবাটা, হলুদ, মরিচ, জিরা ও ধনেগুঁড়া, লবণ দিয়ে অল্প পানিতে কষিয়ে নিন। এবার টুকরা করা কচুরমুখি দিয়ে নাড়ুন। পরিমাণমতো পানি দিয়ে ঢেকে দিন। কচুরমুখি সেদ্ধ হয়ে এলে ভাজা ইলিশের টুকরা ও কাঁচা মরিচ ফালি দিয়ে আরও কয়েক মিনিট ঢেকে রাখুন। তেল ওপরে উঠে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিন।

default-image

ইলিশ পিঠা

উপকরণ: সেদ্ধ ইলিশ (কাঁটা ছাড়ানো) ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, লেবুর রস ১ চা–চামচ, গোলমরিচগুঁড়া ১ চা–চমচ, আদা–রসুন বাটা ১ চা–চামচ, ফিশ সস ১ চা–চামচ, গোলমরিচগুঁড়া আধা চা–চামচ, কুচি করা কাঁচা মরিচ ২টি, তেল ১ টেবিল চামচ, ডো তৈরির জন্য ময়দা দেড় কাপ, লবণ আধা চা–চামচ, চিনি ১ চা–চামচ, তেল ১ চা–চামচ, ভাজার জন্য তেল পরিমাণমতো, লবঙ্গ কয়েকটি।

প্রণালি: ময়দার সঙ্গে তেল, লবণ, চিনি মেখে পরিমাণমতো পানি দিয়ে ডো তৈরি করুন। ইলিশ মাছ সেদ্ধ করে কাঁটা বেছে নিন। তেলে সব মসলা, সেদ্ধ মাছ ও বাকি উপকরণ দিয়ে ভেজে নিন। ছোট ছোট রুটি বানিয়ে দুই পাশে আধা ইঞ্চি করে ছুরি দিয়ে কেটে নিন। দুই পাশে ৪টি করে মোট ৮টি দাগে কাটুন। এবার ভেতরে সেদ্ধ ইলিশ ভরে বাঁয়ের কাটা অংশ ডানে আর ডানের কাটা অংশ বাঁয়ে আটকে দিন। মাথার অংশ একটা লবঙ্গ দিয়ে আটকে দিন। এবার ডুবো তেলে মাছের পিঠা ভেজে নিন।

default-image

মিষ্টিকুমড়ায় ইলিশের মাথা

উপকরণ: ইলিশের মাথা ২টি, মিষ্টিকুমড়া আধা কেজি, শুকনা শিমের বিচি ১৬ থেকে ২০টি, হলুদগুঁড়া ১ চা–চামচ, পেঁয়াজকুঁচি ১ টেবিল চামচ, শুকনা মরিচ ৪টি, লবণ পরিমাণমতো ও তেল ২ টেবিল চামচ।

প্রণালি: ইলিশ মাছের মাথা টুকরা করে লবণ ও হলুদ দিয়ে মেখে ভেজে রাখুন। শুকনা শিমের বিচি টেলে পানিতে ভিজিয়ে নিন। ওপরের আবরণ ফেলে পানি ঝরিয়ে রাখুন।

ইলিশের মাথা যে তেলে ভাজা হবে সেই তেলে শুকনা মরিচ, পেঁয়াজকুচি, রসুনবাটা, হলুদ ও মরিচের গুঁড়া এবং লবণ দিয়ে কষিয়ে নিন। মিষ্টিকুমড়ার টুকরা এতে ঢেলে ভালোভাবে কয়েক মিনিট নাড়ুন। পরিমাণমতো পানি দিয়ে ঢেকে দিন। কিছুটা সেদ্ধ হয়ে এলে ভাজা মাছের মাথা ও শিমের বিচি দিন। সেদ্ধ হয়ে তেল ওপরে উঠে এলে ধনেপাতাকুচি দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে নিন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0