>ঝুমবৃষ্টি দেখতে দেখতে চা পানের মজাই আলাদা। চা যোগে চাই মুখরোচক খাবার। সে রকম কয়েকটি খাবারের রেসিপি দিয়েছেন সেলিনা আক্তার
default-image

ছোলা–চাট

উপকরণ : আলু সেদ্ধ করে টুকরা করে নেওয়া ১ কাপ, ছোলা ৮ ঘণ্টা ভিজিয়ে নিয়ে সেদ্ধ করে নেওয়া ২ কাপ, টমেটোকুচি স্বাদমতো, শসাকুচি স্বাদমতো, ধনেপাতাকুচি ২ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ ছোট কিউব আধা কাপ, কাঁচা মরিচ পছন্দমতো, টালা মরিচের গুঁড়া স্বাদমতো, লবণ স্বাদমতো, ঝুরি ভাজা সাজানোর জন্য, তেঁতুলের সস পরিমাণমতো, টক দইয়ের সস ও সবুজ সস।

তেঁতুলের সস বানাতে: তেঁতুলের পাতলা মাড় ১ কাপ, আখের গুড় ২ টেবিল চামচ, ভাজা ধনেগুঁড়া ১ চা-চামচ, ভাজা জিরাগুঁড়া ১ চা-চামচ, ভাজা পাঁচফোড়নগুঁড়া ১ চা-চামচ, ভাজা মরিচের গুঁড়া ১ চা-চামচ, বিট লবণ আধা চা-চামচ, শুকনা মরিচ ফাঁকি আধা চা-চামচ (কমবেশি করা যাবে), লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি

একটি প্যানে সব একসঙ্গে দিয়ে একটা বলক তুলে নামিয়ে নেবেন।

টক দইয়ের সস বানাতে উপকরণ: টক দই আধা কাপ, টালা জিরাগুঁড়া সিকি চা-চামচ, ভাজা ধনেগুঁড়া সিকি চা-চামচ, চাট মসলা আধা চা-চামচ, বিট লবণ সিকি চা-চামচ ও চিনি ১ টেবিল চামচ।

প্রণালি

সব একসঙ্গে ভালো করে ফেটে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে টক দইয়ের সস।

সবুজ সস তৈরির উপকরণ: কাঁচা মরিচকুচি ৪-৫টি, পুদিনাপাতাকুচি ২ টেবিল চামচ, ধনেপাতাকুচি ২ টেবিল চামচ, লেবুর রস ১ টেবিল চামচ, চিনি ১ চা-চামচ ও লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি

সব একসঙ্গে বিট করে নিতে হবে।

ছোলা–চাট তৈরির প্রণালি: এক এক করে সব সস তৈরি করে নিন। এবার পরিবেশনের পাত্রে ওপরের সব উপকরণ নিয়ে মেশাতে হবে। ওপরের সব সস ও ঝুরি ভাজা দিয়ে সাজিয়ে ছোলা–চাট পরিবেশন করুন।

default-image

মিষ্টি চিড়া ভাজা

উপকরণ: সাদা চিড়া দেড় কাপ, নারকেল (স্লাইস করে কাটা) আধা কাপ, আখের গুড় আধা কাপ, কাজুবাদাম ও চিনাবাদাম ভাজা আধা কাপ, ভাজা শুকনা মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, ঘি ১ টেবিল চামচ ও তেল পরিমাণমতো (ডুবো তেলে ভাজার জন্য)।

প্রণালি: প্রথমে চিড়া ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। কড়াইতে তেল দিন, তেল গরম হলে অল্প করে চিড়া দিয়ে ডুবো তেলে ভেজে নিতে হবে ।

নারকেল টুকরা অন্য একটি কড়াইতে টেলে নিতে হবে। এবার নারকেল নামিয়ে ওই কড়াইতেই এক টেবিল চামচ পানি দিয়ে দিন। গুড় গলিয়ে ঘন শিরায় মরিচগুঁড়া ও ঘি দিয়ে দিন। এবার নারকেল দিয়ে একে একে অন্য সব উপকরণ দিয়ে দিন। ঘন ঘন নাড়ুন। শিরা মাখো মাখো হয়ে এলে নামিয়ে নিতে হবে।

default-image

মুগ ডাল ভাজা

উপকরণ: কাঁচা মুগ ডাল ১ কাপ, বেকিং সোডা আধা চা-চামচ, ডুবো তেলে ভাজার জন্য তেল পরিমাণমতো, বিট লবণ সামান্য, লবণ স্বাদমতো, লাল মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, গরমমসলার গুঁড়া।

প্রণালি: বাটিতে মুগ ডাল নিয়ে এর মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি দিয়ে ৩ থেকে ৪ ঘণ্টা বা সম্ভব হলে আরও বেশি সময় বেকিং সোডার সঙ্গে ভিজিয়ে রাখুন। যাতে ডাল ভিজে ফুলে ওঠে। এবার ডালগুলো ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। ডাল ধোয়া হলে পানি ঝরিয়ে নিন। ডালগুলো একটি ট্রেতে ছড়িয়ে কিচেন টিস্যু দিয়ে চেপে চেপে পানি শুকিয়ে নিন। দরকার হলে ফ্যানের নিচে ছড়িয়ে শুকিয়ে নিন।

এবার একটি কড়াইতে বেশি করে তেল দিয়ে তেল গরম করে ডাল দিয়ে ঘন ঘন দ্রুত হাতে নেড়ে ভাজুন। ডাল ঠিকমতো ভাজা হয়েছে কি না, বোঝার জন্য বুদ্‌বুদের দিকে লক্ষ রাখতে হবে। যখন তেলে বুদ্‌বুদ কম উঠবে তখন বুঝতে হবে ভাজা হয়ে গেছে। ডালগুলো যখন ভাজতে থাকবেন তখন একটা প্যানের ওপর বড় ছাঁকনি বসিয়ে রাখবেন। ডাল ভাজা হয়ে গেলে সরাসরি ছাঁকনির ডালগুলো ঢেলে নিয়ে তেল ঝরিয়ে নিন। এবার একটি প্লেটে টিস্যু পেপার বিছিয়ে ওপরে ভেজে নেওয়া ডালগুলো রাখুন, যাতে অতিরিক্ত তেল শুষে নেয়। ভেজে নেওয়া ডালগুলোতে এবার মসলা মাখিয়ে নিন ভালো করে। বাতাস যাবে না এমন একটি কৌটায় ভরে রাখুন এবং বিকেলের চায়ের আড্ডায় পরিবেশন করুন।

default-image

পটেটো ওয়েজেস

উপকরণ: বড় আলু (তিন কোনা করে কাটা) ৫–৬টি, দু‌ধ ১ কাপ, ডিম ১টি, ময়দা ১ কাপ, কর্নফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ, লবণ স্বাদমতো, মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ, মিক্সড হার্বস আধা চা-চামচ, চিলি ফ্লেক্স আধা চা-চামচ ও ডুবো তেলে ভাজার জন্য তেল পরিমাণমতো।

প্রণালি: আলু তিন কোনা আকৃতিতে লম্বা লম্বা করে কেটে ধুয়ে সামান্য লবণ দিয়ে পানিতে আধা সেদ্ধ করে নিন। একটি বাটিতে ডিম ফেটিয়ে তাতে দুধ দিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এরপর আলুর টুকরাগুলো ঠান্ডা করে ডিমের মিশ্রণে মাখিয়ে রাখুন। একটি পাত্রে ময়দা,কর্নফ্লাওয়ার, মরিচগুঁড়া, গোলমরিচের গুঁড়া, লবণ, মিক্সড হার্বস, চিলি ফ্লেক্স একসঙ্গে মিশিয়ে নিন। এবার দুধের মিশ্রণে ডুবিয়ে রাখা আলুগুলো তুলে একটা একটা করে শুকনা ময়দায় ভালো করে গড়িয়ে তুলে রাখুন। অনেকটা তেল গরম করে মাঝারি আঁচে ওয়েজেসগুলো ভেজে তুলুন অথবা ইলেকট্রিক ওভেনে ২০০ ডিগ্রি প্রি হিটে ২০ মিনিট বেক করুন। সস দিয়ে গরম–গরম পরিবেশন করুন।

default-image

মুরগির পপকর্ন

ম্যারিনেশনের জন্য উপকরণ: মুরগির বুক (ছোট কিউব কাট) ২ কাপ, আদাবাটা ১ চা-চামচ, রসুনবাটা ১ চা-চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া ১ চা-চামচ, লবণ পরিমাণমতো, লাল মরিচগুঁড়া আধা চা-চামচ ও বাটার মিল্ক (১ কাপ দুধে ১ টেবিল চামচ ভিনেগার/লেবুর রস ৫ মিনিট রাখুন)।

শুকনা উপকরণ: ময়দা ১ কাপ, কর্নফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামচ, লাল মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, মেশানো হার্ব ১ চা-চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ, তেল ( ডুবো তেলে ভাজার জন্য) পরিমাণমতো।

প্রণালি: একটি পাত্রে ম্যারিনেশনের সব গুঁড়ামসলা একসঙ্গে মুরগির সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। এভাবে রেখে দিন ১ ঘণ্টা।

 এবার ম্যারিনেট করা মুরগিতে বাটার মিল্ক দিয়ে আরও ১ ঘণ্টা রেখে দিন। একটি ছড়ানো পাত্রে ময়দাসহ সব শুকনা উপকরণ মিশিয়ে নিন। মুরগির টুকরাগুলো শুকনা ময়দায় ভালো করে মিশিয়ে তুলে রাখুন। কড়াইতে অনেকটা তেল গরম করতে দিন। তেল গরম হলে ময়দায় গড়ানো মুরগিগুলো মাঝারি আঁচে ভেজে তুলে পছন্দমতো সস দিয়ে গরম–গরম পরিবেশন করুন।

বিজ্ঞাপন
রসনা থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন