বিজয়ার দিন শেষপাতে পরিবেশন করতে পারেন ঘরে তৈরি মিষ্টি। এগুলো সহজে ও অল্প উপকরণে তৈরি করা যায়। খেতে সুস্বাদুও। জিবে জল আনা নাড়ু আর বরফির রেসিপি দিয়েছেন অধ্যাপক শাহীনা দেওয়ান

চিড়া ও নারকেলের রাজকীয় নাড়ু

default-image

উপকরণ

চিড়া ১ কাপ, নারকেল কোরা ১ কাপ, চিনি ১ কাপের চার ভাগের তিন ভাগ, আখের গুড় সিকি কাপ, বাদাম ও পেস্তা ২৫টি করে, কিশমিশ সিকি কাপ, ঘি এক টেবিল চামচ, এলাচিগুঁড়া এক টেবিল চামচ ও গুঁড়ো দুধ আধা কাপ।

প্রণালি

১. প্যান গরম করে চিড়া হালকাভাবে ভেজে নিতে হবে হালকা বাদামি রং করে। এরপর ঠান্ডা করে ব্লেন্ডারে গুঁড়ো করে নিতে হবে।
২. কোরা নারকেল অল্প পানি দিয়ে ব্লেন্ড করে নিতে হবে।
৩. বাদাম, পেস্তা ও কিশমিশ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিতে হবে।
এবার প্যানে ১ টেবিল চামচ ঘি ও ১ চা–চামচ এলাচিগুঁড়ো দিয়ে এর সঙ্গে চিনি দিতে হবে। এরপর ব্লেন্ড করে রাখা বাদাম, পেস্তা ও কিশমিশ দিতে হবে। ভালোমতো নাড়তে হবে, যাতে সব মিশে যায় ঠিকমতো। এরপর ব্লেন্ড করা নারকেল ঢেলে ভালোমতো মেশাতে হবে। নারকেল থেকে পানি ছাড়বে, চিনি গলে যাবে। পানি শুকালে গুড় দিয়ে দিতে হবে। নেড়েচেড়ে মেশাতে হবে। গুড় মিশে যাওয়ায় পর ভাজা চিড়ার গুঁড়ো দিতে হবে। এরপর দিতে হবে হাফ কাপ গুঁড়ো দুধ। এগুলো ভালোভাবে ধৈর্য ধরে ভাজতে হবে। নিচে লাগা লাগা হলে নামাতে হবে। একটু ঠান্ডা হলে হাতের তালুতে ঘি লাগিয়ে গোল গোল নাড়ু তৈরি করে নিতে হবে।
এবার পরিবেশন করুন আর প্রশংসা পান।

বিজ্ঞাপন

নারকেলের বরফি

একটি অত্যন্ত রুচিকর ও স্বাদে ভরপুর বরফি, যা তৈরি হয় খুব সহজ উপায়ে ও অল্প উপকরণ দিয়ে।

default-image

উপকরণ

নারকেল ১টি, ঘন দুধ ১ কাপ, চিনি দেড় কাপ ও এলাচিগুঁড়ো ১ চা–চামচ।

প্রণালি

প্রথমে কোরা নারকেল ও ঘন দুধ হালকাভাবে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। এবার আঁচে একটি ননস্টিক প্যানে মিশ্রণ ঢেলে এর সঙ্গে এক চামচ এলাচিগুঁড়ো দিয়ে নাড়তে হবে। খেয়াল রাখতে হবে যেন নিচে লেগে না যায়। চিনি থেকে বের হওয়া পানি ও দুধ সবটা শুকিয়ে নিতে হবে। দুধ ও নারকেল পুরোপুরি শুকিয়ে আঠালো ভাব ধরলে নামিয়ে নিয়ে একটি চারকোনা পাত্রে ফয়েল পেপার বা পার্চমেন্ট পেপার বিছিয়ে তাতে ঘিয়ের প্রলেপ দিয়ে তার ওপর নারকেলের মিশ্রণ ঢেলে দিতে হবে। হাত দিয়ে চেপে সমান করে ১ ঘণ্টা রুমের তাপমাত্রায় রেখে ঠান্ডা করতে হবে। ঠান্ডা হলে বরফি আকারে কেটে নিয়ে পরিবেশন করুন।

রন্ধনশিল্পী: সাবেক বিভাগীয় প্রধান, ইংরেজি বিভাগ, বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজ ঢাকা এবং সরকারি হরগঙ্গা কলেজ, মুন্সিগঞ্জ

মন্তব্য পড়ুন 0