default-image

এই পিঠার সঙ্গে আমার অনেক আবেগ আর নস্টালজিয়া জড়িয়ে আছে। আমার দাদু নিজ হাতে আমাকে শিখিয়েছেন। এ বছরের শুরুতে সেই দাদুকে হারিয়ছি। তিনি আমার আমার আব্বুর খালা। কিন্তু দারুণ আদর করতেন সব সময়। এই পিঠা তৈরি শেখানোর সময় দাদু আমাকে বলেছিলেন, ‘আমি যখন থাকব না, তখন এই পিঠা বানানোর সময় আমার কথা মনে করবি।’ এবার বানাতে গিয়ে দাদুকে বেশি করে মনে পড়ছে।

উপকরণ

default-image

ভেজানো মসুরের ডাল ১ কাপ, পানি ৩ কাপ, আতপ চালের গুঁড়া ৪ কাপ, লবণ স্বাদমতো, সয়াবিন তেল পরিমাণমতো। কারণ, ডুবো তেলে ভাজতে হবে।  

সিরার জন্য
খেজুরের গুড় অথবা চিনি ২ কাপ, পানি ২ কাপ, চিনি দিয়ে সিরা তৈরি করলে এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা ২টা করে লাগবে।

বিজ্ঞাপন

প্রণালি

default-image

প্রথমে মসুরের ডাল ধুয়ে কিছু সময় ভিজিয়ে রাখতে হবে; তারপর ৩ কাপ পানি পরিমাণমতো লবণ দিয়ে সেদ্ধ করতে হবে। সেদ্ধ হয়ে গেলে ডাল ঘুটনি দিয়ে ঘুটে নিয়ে চালের গুঁড়া মিশিয়ে ঢেকে দিয়ে ১০ মিনিট সেদ্ধ করতে হবে। এবার ঢাকনা খুলে নেড়ে দিতে হবে। তারপর নামিয়ে ১৫ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে।
এই সময়ে সিরা তৈরি করে নিতে হবে।

সিরা তৈরি
পানি, চিনি, এলাচ, দারুচিনি টুকরা, তেজপাতা দিয়ে ৫ মিনিট জ্বাল দিতে হবে।
খেজুরের গুড়ের সিরা তৈরি করলে পানি আর গুড় দিয়ে ৫ মিনিট জ্বাল দিতে হবে।
এবার ঠান্ডা হয়ে যাওয়া ডাল ভালো করে মেখে গোল আকারে রুটির মতো বেলে টুথপিক দিয়ে পছন্দসই সাইজে কেটে সুন্দর ডিজাইন করতে হবে।
এবার ডুবো তেলে মচমচে করে ভেজে সিরায় চুবিয়ে চালনিতে রাখতে হবে, যাতে অতিরিক্ত সিরা ঝরে যায়।

এরপর পছন্দের প্লেটে তৈরি করা পিঠা সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

লেখক: হোমকুক

মন্তব্য পড়ুন 0