বাংলাদেশ থেকে শুরু রিয়েলমি সি সেভেন্টিনের গ্লোবাল লঞ্চ

বিজ্ঞাপন

বিশ্বের দ্রুতবর্ধনশীল স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০–এ তাদের সি সিরিজের প্রথম মিড লেভেল স্মার্টফোন রিয়েলমি সি সেভেন্টিন বিশ্বব্যপী লঞ্চ করছে। সি সিরিজের মিড লেভেল প্রিমিয়াম স্মার্টফোন সি সেভেন্টিনের গ্লোবাল লঞ্চ বাংলাদেশ থেকে শুরু হচ্ছে। রিয়েলমি সি সেভেন্টিনে থাকছে ৯০ হার্টজের আলট্রা স্মুথ ডিসপ্লে।

টেক ট্রেন্ডি ব্র্যান্ড হিসেবে রিয়েলমি এরই মধ্যে স্টাইলিশ ডিজাইন, দারুণ পারফরম্যান্সের স্মার্টফোন বাজারে এনে তরুণ প্রজন্মের কাছ থেকে ব্যাপক প্রশংসা অর্জন করেছে। রিয়েলমি সি সিরিজের প্রথম মিড-লেভেল স্মার্টফোন রিয়েলমি সি সেভেন্টিন।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বর্তমানে সি সিরিজের বিশ্বব্যাপী ব্যবহারকারী সংখ্যা ১.৩২ কোটি ছাড়িয়েছে। এ সিরিজের স্মার্টফোনগুলোতে সব সময়ই শক্তির সঙ্গে শৈলীর মেলবন্ধন আনছে টেক-ট্রেন্ডসেটার ব্র্যান্ড রিয়েলমি। ফ্ল্যাগশিপ ফিচারসম্পন্ন নতুন ফোনটি আকর্ষণীয় মূল্যে লঞ্চ করা হবে। স্মার্টফোনটিতে ৯০ হার্টজ আলট্রা স্মুথ ডিসপ্লের পাশাপাশি ব্যবহার করা হয়েছে বিশ্বের প্রথম ১১ ন্যানোমিটারের শক্তিশালী স্ন্যাপড্রাগন ৪০০ সিরিজের চিপসেট, যা ব্যবহারকারীর চাহিদা অনুযায়ী কর্মক্ষমতা প্রদান করবে।

নতুন এই স্মার্টফোনটিতে বিভিন্ন কনটেন্ট দেখার আনন্দ পেতে থাকছে ৬ ইঞ্চির থেকেও বড় ডিসপ্লে, যার মধ্যেই সুন্দরভাবে ফ্রন্ট ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। ফোনটিতে ডিসপ্লেতে থাকছে অসাধারণ রিফ্রেশ রেট, শক্তিশালী ব্যাটারি সঙ্গে ফার্স্ট চার্জ। ফোনটিতে এআই কোয়াড ক্যামেরা দিয়ে নিখুঁত ডিটেইলে ও বিভিন্ন মোডে অনন্য সব ছবি তোলা যাবে। এআই ফ্রন্ট ক্যামেরায় থাকবে এআই বিউটি মোড, যাতে তোলা যাবে ঝকঝকে সেলফি। তা ছাড়া উভয় ক্যামেরাতেই ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও ধারণ করা যাবে।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ প্রসঙ্গে রিয়েলমি বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার টিম শাও বলেন, ‘মাত্র কয়েক মাস আগে বাংলাদেশে কার্যক্রম শুরু করার পর থেকে আমরা এখানের ক্রমবর্ধমান তরুণ গ্রাহকদের কাছ থেকে প্রচুর ভালোবাসা পাচ্ছি। বাংলাদেশ বর্তমানে এশিয়ার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বাজার এবং এখানে আমরা আমাদের পণ্যের চাহিদার ক্রমাগত বৃদ্ধি লক্ষ করেছি। আমরা অত্যন্ত আত্মবিশ্বাসী যে আমাদের আগের স্মার্টফোনগুলো যে পরিমাণ ভালোবাসা পেয়েছে, রিয়েলমি সি সেভেন্টিনও একই পরিমাণ ভালোবাসা পাবে।’

মাত্র দুই বছর আগে স্মার্টফোনের বাজারে আবির্ভাবের পর রিয়েলমি দ্রুততার সঙ্গে প্রযুক্তিপ্রেমী তরুণদের জন্য একটি আইকনিক ব্র্যান্ড হয়ে উঠেছে। এরপর থেকে আকর্ষণীয় মূল্যে রিয়েলমি শক্তিশালী স্মার্টফোন এবং নানা এআইওটি পণ্য বাজারে নিয়ে এসেছে। বহুমুখী ডিভাইস এনে রিয়েলমি বর্তমানে ৬১টি বাজারে পৌঁছেছে এবং বিশ্বব্যাপী সাড়ে ৪ কোটি ব্যবহারকারীর হাতে চলে গেছে। সবার প্রত্যাশার চেয়ে উন্নত মানের উদ্ভাবনী সব পণ্য বাজারে আনার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রিয়েলমি প্রতিবছরে ১০ কোটি স্মার্টফোন বিক্রির লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছাতে বদ্ধপরিকর।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রিয়েলমি

ই-কমার্সের বিস্তৃত প্রেক্ষাপটে দৃঢ় পারফরম্যান্স এবং ট্রেন্ডি ডিজাইন সরবরাহকারী ডিভাইস হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করে ২০১৮ সালের মে মাসে রিয়েলমি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। রিয়েলমির বিভিন্ন পণ্য প্রবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে তাদের ‘পাওয়ার’ এবং ‘স্টাইল’–এর জন্য ব্যাপক স্বীকৃতি অর্জন করেছে। ভারতে রিয়েলমি দীপাবলির সময় তিন দিনের মধ্যে এক মিলিয়ন মোবাইল ফোন বিক্রি রেকর্ড গড়েছিল। রিয়েলমি দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার লাজাদার বিক্রির রেকর্ড ভেঙে এই প্ল্যাটফর্মের মোবাইল ফোন বিভাগে ১ নম্বর ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছিল। চীন, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, মিসর ইত্যাদির মতো খুব অল্প সময়ের মধ্যেই রিয়েলমি ২০টির বেশি দেশের বাজারে প্রবেশ করেছে। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারি রিয়েলমি বাংলাদেশের বাজারে প্রবেশ করেছে। রিয়েলমি শক্তিশালী পারফরম্যান্স, আড়ম্বরপূর্ণ ডিজাইন, আন্তরিক পরিষেবাগুলো সরবরাহ এবং স্মার্টফোনের আরও সম্ভাবনা অন্বেষণ করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন