কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ চরমপন্থী নিহত

কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলায় গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মজিবর রহমান ওরফে বাবু (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, মজিবর চরমপন্থী সংগঠন গণমুক্তিফৌজের আঞ্চলিক কমান্ডার ছিলেন। তাঁর বাড়ি মিরপুর উপজেলার স্বরূপদাহ গ্রামে। কুষ্টিয়ার সহকারী পুলিশ সুপার আলমগীর হোসেন জানান, উপজেলার কৈমারা ছাতিয়ান ব্রিজের কাছে বাবু তাঁর ৮-১০ জন সঙ্গী নিয়ে গোপন বৈঠক করছেন—এমন খবরের ভিত্তিতে গতকাল রাত দুইটার দিকে কুষ্টিয়া গোয়েন্দা শাখা পুলিশ ও মিরপুর থানার পুলিশ সেখানে অভিযান চালায়। এ সময় সন্ত্রাসীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে তাদের ওপর গুলি চালায়। পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধ’ বেঁধে যায়। প্রায় ২০ মিনিট ধরে চলা ‘বন্দুকযুদ্ধের’ একপর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটতে বাধ্য হয়।পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে এক সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ মৃতদেহ উদ্ধার করে। এলাকাবাসী লাশটি শনাক্ত করে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বন্দুকের পাঁচটি তাজা গুলিসহ একটি এলজি উদ্ধার করেছে। মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ আনোয়ার হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে প্রথম আলোকে বলেন, বাবু মিরপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধে মিরপুর থানায় দুটি হত্যা মামলাসহ মোট পাঁচটি মামলা রয়েছে।