বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

প্রেম ও প্রতিদ্বন্দ্বী উপন্যাসের কাহিনিবিন্যাসে উত্তুঙ্গ এক প্রেমের গল্প বলতে বলতে ঔপন্যাসিক চলমান সময়ের এমন চিত্র এঁকেছেন যে কয়েকটি পরিবারের অন্তর-অঙ্গ ব্যবচ্ছেদ করে দেখিয়েছেন প্রবহমান জীবন, যাপন, উদ্​যাপন এবং তার আড়ালে গরল বাস্তবতার এক সমুচ্চ উচ্চারণ। উপন্যাসে প্রথমেই দেখতে পাওয়া যায়, এর প্রধান চরিত্র মফস্বল থেকে শহরে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে আসা এক তরুণের জীবনসংগ্রামে টিকে থাকার জন্য তার নিজের সঙ্গে কম্প্রোমাইজের কম্বিনেশন; যেখানে তরুণটির কাছে সবার আগে অর্থই হয়ে ওঠে মুখ্য। টাকার জন্য সপ্তাহকে ভাগ করে বেছে নিতে হয় টিউশনি। মেনে নিতে হয় অভিজাত পরিবারের সন্তানের একরোখা মন, মত। উল্টো দিকে অসহায় অন্যের দিকেও তাকে চোখ রাখতে হয় মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে; যেখানে অনেকটা সময় চলে যায় তার ভরণপোষণ জোগানে।

এখানে লেখক একই সঙ্গে কেন্দ্রকাহিনিকে সমুন্নত রেখে দক্ষতার সঙ্গে ছোট ছোট করে দেখিয়েছেন উচ্চবিত্ত, মধ্যবিত্ত, নিম্নবিত্ত পরিবারের সংকটগুলো। ফলে আমরা দেখতে পাই, সুখ ছুঁতে ছুঁতে কেমন করে কতগুলো মানুষ অসুখী হয়ে উঠছে এবং অসুখের অন্তরালে ‘কীভাবে সুখী করবে’ বলে প্রতিশ্রুতি তৈরি করে তাদের নিয়ে যাচ্ছে বেঁচে থাকার বাতিবিন্দুর দিকে। দেখতে পাই হতাশা, আশাও দেখতে পাই। নিরাশার নিমজ্জন দেখতে পাই, স্বপ্নও দেখতে পাই বর্ণনার বলিষ্ঠতায়। চরিত্রের সঙ্গে চরিত্রের সংযোগ, পার্শ্বকাহিনির কলতান আর একটি পর্ব থেকে আরেকটি পর্বের সংযোগের যে শক্তি, তা গতিচ্ছেদ না ঘটিয়েই পরিণতির দিকে এগিয়ে যায়। উপন্যাসটিতে বিশেষ বৈশিষ্ট্য এই যে মনে হয়, এক থালায় গোটা একটি সমাজব্যবস্থাই এতে পরিচ্ছন্নভাবে পরিবেশিত হয়েছে। যেখানে সমাজকে অবলোকন করা যাচ্ছে, আবার সংসারকেও অবলোকন করা যাচ্ছে। একই সঙ্গে অর্থনীতি ও রাজনীতিকেও। ফলে প্রেম ও প্রতিদ্বন্দ্বীর মধ্যে সমাজের বিচিত্র কোণই হাজির হয়েছে।

শেষ আরেকটি প্রসঙ্গে বলি। সভ্যতার এই পর্যায়ে পৌঁছেও আমাদের মধ্যে পুরুষতান্ত্রিকতার প্রগাঢ় স্বেচ্ছাচারিতার স্বৈরাচারিতা এবং নারী নির্যাতনের মনোভাব থেকে আমরা বের হতে পরিনি। এর সঙ্গে আরও রয়েছে মনোগত টানাপোড়েনের বিষয়–আশয়। এই কারণেই এন্ডোমেট্রিয়াল কার্সিনোমার মতো জটিল ক্যানসারে আক্রান্ত ভালো লাগার নোনতার বিমর্ষ মুখ তরুণটিকে জলে ছলছল করায়, বাধ্য করায় তার অনেক মেজাজমর্জি মেনে নিতে; অন্যদিকে প্রতিবন্ধী তুসি যখন তার কোলে উঠে চিত্রশালার ছবির দিকে না তাকিয়ে বুকের সঙ্গে মিশে-পিষে অপলক তাকিয়ে থাকে তার মুখের দিকে, তখন উচ্ছল হয় ওই তরুণের দেহ-মন। আর যখন নোনতার মৃত্যুর পর বিমূর্ত হয়ে ওঠে তুসির আঁকা চিত্রাঙ্কনগুলো, তখন মূর্ত বাস্তবতাকে পাশে রেখে তরুণটি চূড়ান্তভাবে মিলিত হয় তার কাঙ্ক্ষিত কামনার সঙ্গে। অসাধারণ প্রেমের এ উপন্যাস পাঠককে আনন্দ দেবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

প্রেম ও প্রতিদ্বন্দ্বী

আন্দালিব রাশদী

প্রকাশক: প্রথমা প্রকাশন, ঢাকা প্রকাশকাল: ফেব্রুয়ারি ২০২২

প্রচ্ছদ: মাসুক হেলাল; ১১৮ পৃষ্ঠা

দাম: ২৬০ টাকা।

বইটি পাওয়া যাবে

prothoma.com এবং মানসম্মত বইয়ের দোকানগুলোয়।

বইপত্র থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন