default-image

‘হ্যাঁ, আমি হয়তো খেতে না পেয়ে মরে যেতাম। হ্যাঁ, এটা আমার সৌভাগ্য যে আমাকে হল্যান্ডে পাঠানো হয়েছিল; আমি সেখানে খাবার পেয়েছি, যত্ন পেয়েছি, শিক্ষা পেয়েছি, চিকিত্সা পেয়েছি, সবকিছু পেয়েছি। কিন্তু আজ আমি এখানে কেন? কেন আমাকে বারবার আসতে হয়?...যদি আমার মা আমাকে বলত, দ্যাখ, তুই যদি আমার সঙ্গে থাকিস, তাহলে খেতে না পেয়ে মরে যাবি, আর যদি অন্য লোকদের সঙ্গে অন্য দেশে চলে যাস, তাহলে বেঁচে থাকবি, খেতে-পরতে পাবি, বড়লোক হবি।’

মাত্র দেড় বছর বয়সে মা-বাবার কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন এক মানবসন্তান পরিণত বয়সে মা-বাবাকে খুঁজতে এসেছে হল্যান্ড থেকে বাংলাদেশে। প্রতিবছর সে আসে। পাঁচ বছর ধরে চলছে তার এই খুঁজে ফেরা। এই খুঁজে ফেরার ক্ষান্তিহীন, ক্ষমাহীন, করুণ কাহিনি মশিউল আলমের ছোট্ট উপন্যাস ‘মা কোথায়’। বইটি প্রকাশ করেছে প্রকাশনা সংস্থা প্রথমা।

আমি হয়তো খেতে না পেয়ে মরে যেতাম। হ্যাঁ, এটা আমার সৌভাগ্য যে আমাকে হল্যান্ডে পাঠানো হয়েছিল; আমি সেখানে খাবার পেয়েছি, যত্ন পেয়েছি, শিক্ষা পেয়েছি, চিকিত্সা পেয়েছি, সবকিছু পেয়েছি। কিন্তু আজ আমি এখানে কেন? কেন আমাকে বারবার আসতে হয়?

সাবলীল, প্রাঞ্জল ভাষায় লেখা এই কাহিনি পড়তে পড়তে পাঠক দেখতে পাবেন যেন সবকিছু ঘটছে তাঁর চোখের সামনেই। চরিত্রগুলোর সঙ্গে একাত্ম হয়ে অনুভব করবেন সুখ-দুঃখ, আশা-নিরাশায় ভরা তাদের সমগ্র জীবন। সত্য কাহিনির ছায়ায় রচিত এক চিরন্তন মানবিক দলিল।

বিজ্ঞাপন
default-image

মশিউল আলমের গল্প লেখার শুরু ১৯৮০-র দশকে। জন্ম বাংলাদেশের উত্তরাঞ্চলের জেলা জয়পুরহাটে। মস্কোর পাত্রিস লুমুম্বা গণমৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর ১৯৯৩ সালে দেশে ফিরে সাংবাদিকতা শুরু করেন। বর্তমানে ‘প্রথম আলো’র জ্যেষ্ঠ সহকারী সম্পাদক। তাঁর লেখা উপন্যাস ও গল্পগ্রন্থের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘তনুশ্রীর সঙ্গে দ্বিতীয় রাত’, ‘ঘোড়ামাসুদ’, ‘মাংসের কারবার’, ‘দ্বিতীয় খুনের কাহিনি’, ‘যেভাবে নাই হয়ে গেলাম’, ‘ব্লগার ও অন্যান্য গল্প’, ‘বাংলা দেশ ও অন্যান্য গল্প’ এবং ‘দুধ’। তাঁর গল্প ‘দুধ’ শবনম নাদিয়ার অনুবাদে ‘মিল্ক’ নামে শ্রীলঙ্কাভিত্তিক হিমাল সাউদেশিয়ান শর্ট স্টোরি কমপিটিশন ২০১৯-এ শ্রেষ্ঠ গল্প হিসেবে পুরস্কৃত হয়। একই অনুবাদকের অনুবাদে ‘দ্য মিট মার্কেট অ্যান্ড আদার স্টোরিজ’ নামে তাঁর ইংরেজিতে প্রকাশিতব্য গল্পগ্রন্থ ২০২০ সালের আমেরিকান পেন/হাইম ট্রান্সলেশন ফান্ড গ্র্যান্টস লাভ করে।

‘মা কোথায়’–এর প্রচ্ছদ করেছেন নিয়াজ চৌধুরী তুলি। বইটির গায়ের মূল্য ২২০ টাকা। বইটি পাওয়া যাবে কারওয়ান বাজার ও শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে প্রথমার আউটলেটসহ উল্লেখযোগ্য সব বইয়ের দোকানে। এ ছাড়া ঘরে বসে বই পেতে চাইলে অনলাইনে অর্ডার করতে পারেন prothoma.com থেকে। সরাসরি কল করতে পারেন ০১৯৮৮৩৩৭৭৩৩ নম্বরে।

অন্যান্য থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন