মাগুরা জেলার শালিখা উপজেলায় করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে সেখানকার তরুণ স্বেচ্ছাসেবীরা যে সচেতনতামূলক কর্মসূচি নিয়েছেন, তা প্রশংসনীয়। প্রথম আলোর খবর অনুযায়ী, উপজেলার চার শতাধিক তরুণের একটি স্বেচ্ছাসেবী দল গ্রামে গ্রামে ঘুরে মানুষকে সচেতন করছেন, ঘরে ঘরে গিয়ে বোঝাচ্ছেন করোনা–সংকটে প্রতিটি নাগরিকের কী করণীয়। তাঁরা নাগরিকদের ঘরে থাকার পরামর্শ দিচ্ছেন। তবে জরুরি প্রয়োজনে যঁারা ঘরের বাইরে আসতে বাধ্য হচ্ছেন, তঁাদের সুরক্ষার জন্য সবাইকে নির্দিষ্ট দূরত্বে চলাচল করতে বলছেন।

প্রথম আলোয় প্রকাশিত ছবিতে দেখা যায়, টিসিবির পণ্য কিনতে আসা মানুষগুলো নির্দিষ্ট দূরত্ব মেনে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। তাঁদের সবার মুখে মাস্ক পরা। ক্রেতারা বাজারে আসতে যেসব যানবাহন তথা ইজিবাইক বা ভ্যান ব্যবহার করছেন, তরুণেরা সেসব যানবাহনে স্প্রে ছিটিয়ে ভাইরাসমুক্ত রাখার চেষ্টা করছেন। এই তরুণেরা বোঝাচ্ছেন ঘরে গিয়ে কী কী স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

শালিখার তরুণদের এই উদ্যোগকে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করছে স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধি ও আনসার–ভিডিপির সদস্যরা। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রতিটি ইউনিয়নে একটি করে হটলাইন দেওয়া হয়েছে, যাতে করে জনগণ করোনাভাইরাস সম্পর্কে কোনো প্রশ্ন থাকলে করত পারেন। প্রশাসনের পক্ষ থেকে সেই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়। উপজেলা প্রশাসন থেকে প্রতিটি ইউনিয়নে একজন করে কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে, যিনি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সহায়তায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারেন।

শালিখা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানভীর রহমান যথার্থই বলেছেন, সাধারণ দুর্যোগ হলে প্রশাসন, পুলিশ, আনসার ও জনপ্রতিনিধিদের নিয়েই সেটি মোকাবিলার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু করোনাভাইরাসের মতো সর্বগ্রাসী দুর্যোগ মোকাবিলা করে জনগণকে সম্পৃক্ত করতে হয়। আর এ ক্ষেত্রে তরুণেরাই হতে পারেন প্রধান চালিকা শক্তি।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় একটি উপজেলায় যদি চার শতাধিক তরুণ স্বেচ্ছাসেবী কাজ করতে পারেন, তাহলে সারা দেশে অসংখ্য তরুণকে এ ধরনের কাজে যুক্ত করা যায়। এখনো যেসব উপজেলায় তরুণদের সংগঠিত করা যায়নি, সেখানে শালিখার দৃষ্টান্ত অনুসরণ করা যেতে পারে।

অনেক সময় তরুণদের কাজকে আমরা গুরুত্ব দিই না। কিন্তু শালিখার তরুণেরা একটি ভালো দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমরা শালিখার তরুণ স্বেচ্ছাসেবীদের অভিনন্দন জানাই। একই সঙ্গে প্রত্যাশা, দেশের সব উপজেলার তরুণদের এই সচেতনতামূলক কর্মসূচিতে এগিয়ে আসবে। অদম্য তরুণেরা হোক করোনা–দুর্যোগ মোকাবিলার সাহসী যোদ্ধা। 

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0