বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফার্মেসিগুলোতে প্রাথমিক অবস্থায় রোগীকে অ্যান্টিবায়োটিক ওষুধ দেওয়া হয়। এতে সাময়িকভাবে সেরে উঠলেও পরবর্তী সময়ে শরীরে দেখা যায় এর মারাত্মক প্রভাব। এতে একসময় হালকা অসুস্থ অনুভব হলেই অ্যান্টিবায়োটিকের প্রয়োজন পড়ে এবং শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকে যদি দক্ষ চিকিৎসক রেখে মানুষকে সেখানে যেতে উদ্বুদ্ধ করা হয়, তাহলে এই চিত্রে পরিবর্তন আসবে। গ্রামের মানুষ অসুস্থ হলে নিরাময়কেন্দ্র হিসেবে প্রথমে বেছে নেবেন কমিউনিটি ক্লিনিক। তাই দ্রুত প্রতিটি কমিউনিটি ক্লিনিকের অবস্থা উন্নত করা হোক। ফার্মেসিগুলোতে প্রেসক্রিপশনবিহীন ওষুধ বিক্রি বন্ধ করা হোক।

মাহমুদ নাঈম
কিশোরগঞ্জ

চিঠি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন