তরুণ সমাজ ফিরে আসুক সঠিক পথে

আমাদের সমাজ কিংবা রাষ্ট্রে বিভিন্ন ধরনের অস্থিরতা বিরাজমান। এর মধ্যে তরুণ সমাজের অনৈতিক কর্মকাণ্ডগুলো দৃশ্যমান। তরুণদের বড় অংশ সমাজে এমন কিছু অপ্রত্যাশিত কর্ম সম্পাদন করে থাকে যেগুলো দেশের নারী সমাজের জন্য অভিশাপ বা হুমকিস্বরূপ। শহরাঞ্চল এবং গ্রামাঞ্চলে কোথাও যেন নারীরা নিরাপত্তা পাচ্ছে না। নারীরা একটি দেশের রাজনৈতিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে মুখ্য ভূমিকা রাখেন। কিন্তু মর্মান্তিক বিষয় হচ্ছে তরুণ সমাজের কবল থেকে নিজেকে মুক্ত করতে পারেননি নারী সমাজ। শিশু থেকে বৃদ্ধা সব শ্রেণিই এখন তরুণদের কাছে নির্যাতিত, অবহেলিত এবং কলুষিত। তরুণদের বড় অংশ সমাজের অনৈতিকতার করাল গ্রাসে নিমজ্জিত।

বিজ্ঞাপন

একটি দেশের উন্নয়নে তারুণ্য শক্তির ভূমিকাই মুখ্য। তরুণেরা সমাজ বিনির্মাণে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিতে পারে কিংবা তরুণদের ওপর ভিত্তি করে একটি রাষ্ট্র প্রগতির দিকে এগিয়ে যায়। তরুণেরা যখন আদর্শ ও মূল্যবোধ ভুলে গিয়ে হয়ে ওঠে ধর্ষক, মাদকাসক্ত কিংবা সন্ত্রাসী তখন তাদের কাছ থেকে আর কি প্রত্যাশা করা যায়?

নারীদের উত্ত্যক্ত করা, ধর্ষণ কিংবা ধর্ষণের পর হত্যা করাটা এখন প্রাত্যহিক ঘটনা। মহামারি করোনা ভাইরাসের মতো এসব কর্মকাণ্ড ছড়িয়ে পড়ছে সমাজ কিংবা রাষ্ট্রের রন্ধ্রে রন্ধ্রে। নির্যাতিত কিংবা নিপীড়িত হচ্ছে নারীরা। এ থেকে যেন মুক্তি নেই।

যেখানে নারী-পুরুষের সমান অধিকারের কথা বলা হয়ে থাকে, সেখানে আজ নারীরা অবহেলিত। সর্বোপরি উল্লেখ করা যায়, তরুণেরাই নারী সমাজের জন্য হুমকিস্বরূপ। তরুণদের এসব অনৈতিক কর্মকাণ্ড প্রতিহত করার জন্য প্রয়োজন নৈতিক শিক্ষা, পারিবারিক সচেতনতা বৃদ্ধি, বিচারহীনতার সংস্কৃতির পরিত্যাগ ও কঠোরভাবে আইনের প্রয়োগ করা। এসব বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের দায়িত্বশীল আচরণ কাম্য।

*মো. আকিব হোসাইন

রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা কলেজ।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0