বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থার বিষফোড়া হচ্ছে কোচিং-বাণিজ্য। নতুন করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বাধ্যতামূলক কোচিং চালু হয়েছে। রমরমা এ বাণিজ্যে অনেক প্রতিষ্ঠান কোটিপতি বনে গেছে। সেখানে কোনো শিক্ষার্থী বা অভিভাবক অসমর্থ বা অনিচ্ছুক হলেও প্রতি মাসে তাঁকে ১ হাজার ৫০০ টাকা থেকে ২ হাজার টাকার ওপরে ফি পরিশোধ করতে হচ্ছে।
ফলে শিক্ষা নামের সোনার হরিণ অধরাই থাকল। একজন শিক্ষার্থীর যাবতীয় খরচের পাশাপাশি এমন বাড়তি ফি তো ‘গোদের ওপর বিষফোড়া’। ফলে অধিকাংশ অভিভাবক তাঁদের সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন। এমনকি অনেকেই বাধ্য হচ্ছেন শিক্ষার্থীকে প্রতিষ্ঠানছাড়া করতে।
এ অবস্থায় যথাযথ পদক্ষেপ না নেওয়া হলে নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষেরা আর্থিক চাপে পড়ে যাবে। তথাকথিত ফলাফল-বাণিজ্যও মাথাচাড়া দিয়ে উঠবে। এমন অভিশপ্ত প্রক্রিয়া দ্রুত বন্ধ করতে না পারলে অযাচিত দুর্ভাগ্যই হবে আমাদের নিত্যসঙ্গী। তাই শিক্ষামন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করছি।
মো. রাসেল মিয়া, ঢাকা।

বিজ্ঞাপন
চিঠি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন