২০০১ সালে এসএসসি পাস করার পর মাস্টার্স পাস করলাম এ বছর। অর্থাৎ, সেশনজটের কারণে নির্দিষ্ট সময়ের পর আরও প্রায় পাঁচ বছর কেটে গেল। আর কয়েক মাস পর ফুরিয়ে যাবে চাকরিতে প্রবেশের বয়স। এর দায়ভার এখন কে নেবে?

এখন এ পড়াশোনা আমার জন্য অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পত্রিকার নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে দেখবেন, এখানে নতুনদের কোনো চাকরি নেই। কোথাও আবেদন করলে সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকা হয় না। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিগুলো লোক দেখানো মাত্র। এগুলো দিয়ে আমার মতো বেকারদের সঙ্গে যেন উপহাস করা হয়।
আর সরকারি নিয়োগগুলোয় চলে ব্যাংক ড্রাফটের ব্যবসা। প্রতিটি আবেদনের সঙ্গে নেওয়া হয় ২০০ থেকে ৫০০ টাকার ব্যাংক ড্রাফট। যেখানে বেকারত্বের কারণে পরিবার থেকে শুনতে হয় নানা কথা, সেখানে এ ব্যাংক ড্রাফট মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা হয়ে দেখা দেয়। আমি জানতে চাই, পড়ালেখা করে কি আমি সত্যিই ভুল করেছি? না হয় কেন আজ বেকার হয়ে ঘুরতে হচ্ছে।
নানা কথা শুনতে হচ্ছে পরিবার ও সমাজের কাছ থেকে। এভাবে আর কতকাল নিয়োগ নামের ব্যাংক ড্রাফটের বলি হব? মুক্তি চাই। একটা সুন্দর জীবনের প্রত্যাশা কি আমি করতে পারি না? নাকি তাও ভুল বলে বিবেচিত হবে?
টিপু সুলতান
চট্টগ্রাম।

বিজ্ঞাপন
চিঠি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন