আজ শহীদ দিবসে আমরা স্মরণ করছি কুমিল্লার কৃতী সন্তান তৎকালীন গণপরিষদের সদস্য শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্তকে, যিনি প্রথম গণপরিষদে ১৯৪৮ সালে বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার দাবি জানিয়েছিলেন।
পরবর্তীকালে এই দাবিটিই হয়ে ওঠে এ অঞ্চলের মানুষের প্রাণের দাবি। আর সেই দাবি আদায়ের জন্য ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রুয়ারিতে বাংলার সন্তানেরা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে বেরিয়ে ছিল রাজপথে। জীবন পর্যন্ত দিতে দ্বিধা করেনি শুধু আমাদের বাংলা ভাষাকে রাষ্ট্রীয় ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য।
কিন্তু আমাদের বাংলাচর্চাতে ভীষণ অনীহা পরিলক্ষিত হচ্ছে। বিদেশি টিভি চ্যানেলের দায়ে বাংলা ভাষা হতে চলেছে মিশ্র ভাষা। যতটুকু বাংলা প্রচলিত আছে, সেখানেও শুদ্ধ বাংলার চর্চা হচ্ছে না। আজকাল দেয়াললিখন, দোকানের নামকরণ, বিলবোর্ড, পোস্টার, লিফলেট ইত্যাদি ক্ষেত্রে বাংলা বানান ভুল ধরা পড়ছে। আর অধিকাংশ সাইনই ইংরেজিতে লেখা হচ্ছে।
ভাষার সমৃদ্ধি ঘটাতে হলে সর্বস্তরে এর ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। স্কুল-কলেজেই তা যথাযথভাবে শেখানোর ব্যবস্থা করতে হবে। তা না হলে এই ভাষার উন্নতি ঘটবে না।
মো. মিনহাজুর রহমান ভুঁইয়া
শিক্ষার্থী, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি।

বিজ্ঞাপন
চিঠি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন