ধান রক্ষায় মরিয়া কৃষক

উজানের পাহাড়ি ঢল এলেই হাওর এলাকা কৃষকেরা ক্ষতির মুখে পড়েন। ঢলের পানিতে ফসল তলিয়ে গেলে স্বপ্ন ভেসে যায় হাওরপারের কৃষকদের। দুই দফা উজান থেকে নামা পাহাড়ি ঢলে চরম ঝুঁকিতে পড়েছে সব হাওর এলাকার বোরো ধান। ইতিমধ্যে কয়েকটি হাওরে বাঁধ ভেঙে ও বাঁধ উপচে ফসলহানি হয়েছে। এখনো ঝুঁকিতে রয়েছে জেলার অনেক হাওর। ভারী বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢল বাড়লেই নতুন করে হাওর রক্ষা বাঁধ ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ঢলের ভয়ে বাঁধের কাছে বসে থাকেন হাওরপারের কৃষকেরা। তড়িঘড়ি করে ফসল তুলছেন কৃষকেরা। অনেকে আতঙ্কে আধা পাকা ধান কেটে ঘরে তুলছেন। হাওরে উৎসবের বদলে কৃষকের মনে শুধুই ফসল হারানোর ভয়। ছবিগুলো সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর করচার হাওর, তাহিরপুরের জিনারিয়া ও মোহালিয়া, শান্তিগঞ্জ ও সদরের দেখার হাওর থেকে তোলা।

১ / ১২
চারদিকে পানি। খানিক শুকনো জায়গায় চলছে ধান মাড়াই
২ / ১২
হাওর থেকে ধান কেটে নৌকায় করে আনছেন কৃষকেরা
৩ / ১২
নৌকা থেকে ধান তীরে রাখা হচ্ছে
৪ / ১২
হাওরের পাশে খলায় ধান মাড়াই চলছে
৫ / ১২
অনেক এলাকায় ধান মাড়াইয়ের স্থান পানির নিচে
৬ / ১২
কাঁচা ধান কেটে বাড়ি ফিরছে তিন কিশোর
৭ / ১২
ধানের খড় সংগ্রহ করে নেওয়া হচ্ছে হাওর থেকে
৮ / ১২
আধা পাকা ধান কেটে আঁটি বাঁধছেন কৃষক
৯ / ১২
যেটুকু ধান তুলছেন, সেটুকুই রোদে শুকাচ্ছেন কেউ কেউ
১০ / ১২
ঝুঁকিপূর্ণ জিনারিয়া হাওরে বাঁধের ওপর বসে আছেন আতঙ্কিত কৃষকেরা
১১ / ১২
বাঁধের ওপারে ঢলের পানি, এপারে কৃষকের বোরো ফসল। পানি বাড়লে বাঁধ উপচে বা ভেঙে পানি হাওরে ঢুকতে পারে।
১২ / ১২
একদিকে সবুজ বোরো ফসল, অন্যদিকে কৃষকের বড় শত্রু ঢলের পানি। মাঝখানে বাঁধ। ধান কেটে বাঁধে স্তূপ করে রাখা হচ্ছে