বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রুহুল কবীর রিজভী বলেন, আইনজীবীরা বলছেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে আইনের অপব্যাখ্যা দিয়ে তাঁকে আটকে রাখা হয়েছে। গতকাল আইনমন্ত্রী বলেছেন, খালেদা জিয়াকে বিদেশে পাঠানোর সুযোগ আইনে নেই। আইনমন্ত্রী নিজের কথা বলছেন, আইনের কথা বলছেন না। আইনমন্ত্রী আইনের বিকৃত ব্যাখ্যা দিচ্ছেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শেখানো বক্তব্য দিচ্ছেন।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগ দিনের ভোট রাতে পাচার করেছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ভোট চুরির পরেও আওয়ামী লীগ গলাবাজি করে। পুরো জাতি তাদের ‘চোর চোর’ বলে গালি দেয়। এটা চোরের মায়ের বড় গলা প্রবাদের বাস্তব উদাহরণ।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, ‘দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাবেক ও বর্তমান কিছু কর্মকর্তাকে যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এটা নিয়েও প্রধানমন্ত্রী গলাবাজি ও গালাগালি করছেন। প্রধানমন্ত্রী আপনি অন্য দেশকে গালাগালি করেন, আপনার দেশে কি গুম হয় না? তাহলে ইলিয়াস আলী কোথায়? আপনার দেশে বন্দুকযুদ্ধ হয় না? তাহলে ছাত্রদল নেতা জনি কোথায়?’

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্যসচিব রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ, ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্যসচিব আমিনুল হক, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভূঁইয়া, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান ছাড়াও অন্যরা বক্তব্য দেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন