বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খালেদা জিয়ার প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, জীবিত একমাত্র নেত্রী খালেদা জিয়া গণতন্ত্রকে প্রতিষ্ঠার করার জন্য সংগ্রাম করেছেন। উড়ে এসে জুড়ে বসে প্রধানমন্ত্রী হননি। তিনি এখন জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে বন্দী।

বিএনপির সাম্প্রতিক সমাবেশ, আন্দোলন সম্পর্কে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমরা লড়াই করছি। লড়াই বেগবান হয়েছে। বিশ্বাস করি, অতি অল্প সময়ের মধ্যে এ লড়াই দুর্বার গণ–আন্দোলনে পরিণত হবে। এ গণ–আন্দোলনের মধ্য দিয়ে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে সক্ষম হব।’ একটি জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করে দুর্বার আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বিএনপি এই সরকারের পতন ঘটাবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগের গত তিনটি নির্বাচনের কৌশল বিএনপি বুঝতে পারেনি বলে উল্লেখ করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, ‘পরপর তিনটি নির্বাচন তিন কৌশলে পার করেছে। তাদের নির্বাচনের কৌশল আমরা নির্বাচনের আগে বুঝিনি। নির্বাচনের পরে বুঝছি।’

গয়েশ্বর চন্দ্র আরও বলেন, ‘আমাদের দুর্বলতা একটা জায়গায় যে শেখ হাসিনা কী করবে, এটা আমরা আগে বুঝতে পারি না। ঘটনা ঘটার পরে বুঝতে পারি। দিনের ভোট রাত করবে, এটা কে বুঝবে?’

মানুষ এখন আন্দোলনের জন্য প্রস্তুত উল্লেখ করে বিএনপির এই নেতা বলেন, বিএনপি দীর্ঘদিন আন্দোলনের বাইরে ছিল। ডাক পড়লে কর্মীরা চলে আসেন। রাজপথ মোকাবিলার সাহস তাঁদের আছে। আপসহীন নেত্রীর মুক্তি আন্দোলন ছাড়া হওয়ার কোনো কারণ নেই।

বিএনপির সহদপ্তর সম্পাদক তাইফুল ইসলামের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান ওমর, নিতাই রায় চৌধুরী প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন