default-image

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আপাতত রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালেই থাকবেন। তাঁর সব পরীক্ষা-নিরীক্ষা এখনো শেষ হয়নি। সব পরীক্ষা শেষে চিকিৎসকদের পর্যালোচনার পর বাসায় নেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

আজ বুধবার দুপুরে খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক দলের সদস্য এ জেড এম জাহিদ হোসেন মুঠোফোনে প্রথম আলোকে বলেন, নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষার অংশ হিসেবে গত রাতে কিছু পরীক্ষা হয়েছে। আজও কিছু পরীক্ষা হবে। প্রয়োজনে আগামীকালও কিছু পরীক্ষা হতে পারে।

এভারকেয়ার হাসপাতালে ডা. শাহাবউদ্দিন তালুকদার ছাড়াও আরও কয়েকজন চিকিৎসক এ দলে যুক্ত হয়েছেন বলেও জানান জাহিদ হোসেন। তিনি বলেন, প্রয়োজন পড়লে আরও দুদিন হাসপাতালে থাকতে পারেন খালেদা জিয়া।

বিজ্ঞাপন

খালেদা জিয়ার মেডিকেল রিপোর্ট পর্যালোচনা কখন হবে—এমন প্রশ্নে এ জেড এম জাহিদ হোসেন বলেন, সব পরীক্ষা শেষ হলে। সব পরীক্ষা কি আজকের মধ্যে শেষ হতে পারে, জানতে চাইলে তিনি বলেন, আজকের মধ্যে সব পরীক্ষা শেষ হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ, অনেক পরীক্ষা আছে, যেগুলো করতে ২৪ ঘণ্টা সময় নিতে হয়। বেসিক পরীক্ষাগুলো কিছু শুরু হয়েছে। ফলাফলও আসা শুরু হয়েছে। তবে খালেদা জিয়া ভালো আছেন। তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল।

খালেদা জিয়ার এই চিকিৎসক আরও বলেন, গত দেড় বছরে ওনার নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়নি। এর আগে ১৫ এপ্রিল শুধু সিটি স্ক্যান করানো হয়েছে। এখন যেহেতু করোনার বিষয়টি আর সেভাবে নেই, এ জন্য ওনাকে রুটিন চেকআপের জন্য আনা হয়েছে। সিটি স্ক্যানসহ ইতিমধ্যে যেসব পরীক্ষা করা হয়েছে, তাতে বড় কোনো জটিলতা পাওয়া যায়নি বলেও জানান এ জেড এম জাহিদ হোসেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন