default-image

নিজেদের কুকীর্তি-অপকীর্তি ঢাকার জন্য সরকার দেশের শ্রেষ্ঠ সন্তানের খেতাব কেড়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘এতে আপনারা অপমানিত হবেন, জিয়াউর রহমানের কিছু হবে না।’

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব)–এর এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে রিজভী এ অভিযোগ করেন। জিয়াউর রহমানের রাষ্ট্রীয় ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এ মানববন্ধন হয়।

বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ বীর বিক্রমের একটি বক্তব্য উদ্ধৃত করে রিজভী বলেন, ‘একাত্তরে ৮০ হাজার মুক্তিযোদ্ধা লড়াই করেছে। আর আওয়ামী লীগ তালিকা করছে আড়াই লাখ মুক্তিযোদ্ধার। কারণ, ওদের আত্মীয়স্বজন, নাতি-নাতনি— যাঁদের ’৭১ সালে জন্ম হয়নি, তাঁদেরও তালিকা করছে এই আওয়ামী লীগ সরকার।’

বিজ্ঞাপন

রিজভী বলেন, ‘আল-জাজিরার প্রতিবেদন দেখলে গা শিউরে ওঠে। রাষ্ট্রীয় ক্ষমা করা হয়েছে। আইনমন্ত্রী বলছেন, আমি জানি না; স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছেন, আমি জানি না। গোপনে-অন্ধকারে কত দুরাচার করছে এই সরকার, কত ধরনের অপকীর্তি, কত অন্যায় করে আজকে মাফিয়াতন্ত্র চালু করছে এই সরকার।’

ড্যাবের সভাপতি হারুন আল রশিদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, সহপ্রচার সম্পাদক শামীমুর রহমান, ড্যাবের মহাসচিব আবদুস সালাম, সংগঠনের কেন্দ্রীয় নেতা সিরাজুল ইসলাম, জহিরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর যুবদলের গোলাম মাওলা শাহিন প্রমুখ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন