বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এদিকে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনের বিষয়ে মত নিতে রাষ্ট্রপতি আরও পাঁচটি দলকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের প্রেস অনুবিভাগের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। এর মধ্যে আগামী সোমবার সন্ধ্যা ছয়টায় গণতন্ত্রী পার্টি, সাতটায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি ও সাড়ে সাতটায় বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনকে সংলাপে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানানো হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যা ছয়টায় বাংলাদেশের সাম্যবাদী দল ও সাতটায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সঙ্গে সংলাপ হবে।

স্থায়ী আইন করা আবশ্যক: ইসলামী ঐক্যজোট

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপে গতকাল নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য চারটি প্রস্তাব দিয়েছে ইসলামী ঐক্যজোট। এক. সাংবিধানিক পদে থাকা গ্রহণযোগ্য, নির্ভরযোগ্য ও ইমানদার ব্যক্তিদের মধ্য থেকে অনুসন্ধান কমিটির সদস্য নেওয়া। দুই. একটি স্বাধীন, দক্ষ, নিরপেক্ষ ও শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠনের জন্য স্থায়ী আইন করা। তিন. নির্বাচন অনুষ্ঠানে নির্বাহী বিভাগ নির্বাচন কমিশনকে পূর্ণ সহযোগিতা করবে মর্মে স্থায়ী আইন করা। চার. রাজনৈতিক বিবেচনায় নিয়োগপ্রাপ্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নির্বাচন কমিশন থেকে প্রত্যাহার করা।

default-image

সংলাপ শেষে বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে এসে ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আবুল হাসানাত আমিনী প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা মৌখিকভাবে রাষ্ট্রপতিকে এটাও বলেছি যে সাংবিধানিক পদে না থাকলেও প্রয়োজনে আইন সংশোধন করে হলেও একজন সর্বজনীন শ্রদ্ধেয় আলেমকে অনুসন্ধান কমিটিতে রাখা উচিত।’

আবুল হাসানাত আমিনীর নেতৃত্বে সংলাপে আরও অংশ নেন ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতি ফয়জুল্লাহ, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ মজুমদার, যুগ্ম মহাসচিব তৈয়্যব হোসাইন, ফজলুর রহমান, শেখ লোকমান হোসাইন ও আলতাফ হোসাইন।

বিএনএফ যা বলল

এর আগে সংলাপে অংশ নিয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ) অনুসন্ধান কমিটি গঠন করে অনধিক পাঁচজন নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ করার প্রস্তাব করেছে। অনুসন্ধান কমিটির জন্য তারা দুজন অধ্যাপক, একজন সাবেক নির্বাচন কমিশনার, একজন সাবেক সেনা কর্মকর্তা এবং একজন সাবেক আইজিপির (পুলিশের মহাপরিদর্শক) নাম প্রস্তাব করেছে।

বিএনএফ নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ এবং অর্থবহ করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের প্রস্তাব দিয়েছে।

বিএনএফের সভাপতি এম এম আবদুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে সংলাপে দলের সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, সহসভাপতি এ ওয়াই এম কামরুল ইসলাম, মো. আতিকুর রহমান ও মমতাজ সুলতানা আহমেদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শফিউল্লাহ চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মাহবুব হাসান অংশ নেন।

নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করতে ২০ ডিসেম্বর জাতীয় পার্টির (জাপা) সঙ্গে আলোচনার মধ্য দিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপ শুরু হয়। আগামী রোববার সংলাপে অংশ নেবে গণফোরাম ও বিকল্পধারা বাংলাদেশ।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন