বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বছর তিন তরুণ সাংবাদিক এই পুরস্কার পেয়েছেন এবং চার সাংবাদিক পেয়েছেন ফেলোশিপ। অনুষ্ঠানের সভাপতি সাবেক প্রধান তথ্য কমিশনার ও দৈনিক আজকের পত্রিকার সম্পাদক অধ্যাপক গোলাম রহমান বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। দৈনিক প্রথম আলোর যুব কার্যক্রম ও ইভেন্টস বিভাগের প্রধান মুনির হাসান, বেসরকারি টেলিভিশন নিউজ২৪-এর জ্যেষ্ঠ বার্তা সম্পাদক বোরহানুল হক সম্রাট, ইউএনডিপির কান্ট্রি ইকোনমিস্ট নাজনীন আহমেদকে নিয়ে গঠিত জুরিবোর্ড বিজয়ীদের নির্বাচন করে।

পুরস্কারপ্রাপ্ত সাংবাদিকেরা হলেন বাংলাদেশ টেলিভিশনের (বিটিভি) মো. ইকবাল হোসেন ‘সামাজিক রূপান্তরে যুব নেতৃত্ব’ বিভাগে, দ্য ঢাকা অ্যাপোলগের ডেপুটি ম্যানেজিং এডিটর মিফতাহুল জান্নাত ‘যুব সংবেদনশীল জবাবদিহিতামূলক জনসেবা’ বিভাগে এবং এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মো. শরফুল আলমকে ‘যুবদের জন্য অর্থনৈতিক সুযোগ এবং শোভন কাজ’ বিভাগে প্রাসঙ্গিক ও ব্যাখ্যামূলক প্রতিবেদন করেন।

অন্যদিকে বেসরকারি টেলিভিশন নিউজ২৪-এর সাংবাদিক বাবু কামরুজ্জামান, ডেইলি স্টারের সাংবাদিক নীলিমা জাহান, দৈনিক যুগান্তরের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক এম ইউসুফ আলী, আইপিনিউজ বিডির প্রধান প্রতিবেদক সতেজ চাকমা ফেলোশিপ পেয়েছেন।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে একশনএইড বাংলাদেশের ইয়াং পিপল টিমের ব্যবস্থাপক নাজমুল আহসান বলেন, সামাজিক অগ্রগতির জন্য তরুণদের সঙ্গে নিয়ে যুব নেতৃত্ব সৃষ্টিতে কাজ করছেন তাঁরা। এরই ধারাবাহিকতায় তরুণ সাংবাদিকদের অবদানকে অনুপ্রাণিত ও স্বীকৃতি দিতে একশনএইড ইয়ং জার্নালিস্ট মিডিয়া অ্যাওয়ার্ডের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন