default-image

ঢাকার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম কে আনোয়ারের দ্বিতীয় নামাজে জানাজা সম্পন্ন হয়েছে। এর আগে কাঁটাবনে তাঁর প্রথম জানাজা হয়।

আজ মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে দ্বিতীয় জানাজার পর জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় তাঁর তৃতীয় নামাজে জানাজা হওয়ার কথা। পরে তাঁর মরদেহ বারডেম হাসপাতালের হিমাগারে রাখা হবে। কাল বুধবার কুমিল্লার হোমনায় পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর মরদেহ দাফন করার কথা।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাত ১টার কিছু পরে ঢাকার এলিফ্যান্ট রোডে নিজ বাড়িতে তিনি ইন্তেকাল করেন (ইন্না লিল্লাহি...রাজিউন)।

বিএনপির মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান জানান, দলের এই নেতা অনেক দিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা রোগে ভুগছিলেন। তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

১৯৫৩ সালে তৎকালীন সিএসপি কর্মকর্তা হিসেবে সরকারি চাকরিতে যোগ দেন এম কে আনোয়ার। পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্বপালন করেছেন তিনি। এম কে আনোয়ার ১৯৯০ সালে রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ কর্মকর্তা কেবিনেট সচিবের দায়িত্ব থাকা অবস্থায় অবসরে যান। চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর ১৯৯১ সালে তিনি বিএনপির রাজনীতিতে যোগ দেন।

default-image

কুমিল্লার হোমনা আসন থেকে এই নেতা একাধিক বার জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। দুইবার মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপালন করেন।

দলের প্রবীণ এই নেতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত জানাজায় দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, আবদুল্লাহ আল নোমান, মোহাম্মদ শাহজাহানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন