default-image

জাতীয় পার্টির সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া রংপুর-৩ আসনের নির্বাচন পেছাতে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আবারও আবেদন পড়েছে। বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের পক্ষে আজ সোমবার সকালে সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত স্বাক্ষরিত এ–সংক্রান্ত একটি স্মারকলিপি প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) কাছে জমা দেওয়া হয়।

ওই আসনে ৫ অক্টোবর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ওই দিন হিন্দু সম্প্রদায়ের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজার মহাসপ্তমী। এতে করে এই সম্প্রদায়ের ভোটারদের ভোটে অংশ নেওয়া কঠিন হবে। রংপুর-৩ আসনে ভোট না পেছালে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ভোট বর্জনের হুমকি দেওয়া হয় স্মারকলিপিতে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করায় কমিশনকে ধন্যবাদ জানানো হয় স্মারকলিপিতে। একই সঙ্গে রংপুর-৩ আসনের উপনির্বাচনের তারিখ ৫ অক্টোবর থেকে সরিয়ে শারদীয় দুর্গা উৎসবের পর অন্য যেকোনো দিন পুনর্নির্ধারণ করার অনুরোধ জানানো হয়।

এর আগে ১ সেপ্টেম্বর এই আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে ইসি। তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র জমার শেষ তারিখ ছিল ৯ সেপ্টেম্বর, বাছাই ১১ সেপ্টেম্বর, প্রত্যাহারের শেষ তারিখ আজ ১৬ সেপ্টেম্বর।

এর আগে পূজা উদযাপন পরিষদের এ–সংক্রান্ত আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে গত ১২ সেপ্টেম্বর ইসি সচিব মো. আলমগীর জানান, রংপুর-৩ আসনের ভোট পেছানো হবে না। নির্ধারিত সময়ে ভোট হলে নির্বাচনী এলাকার সবার জন্য সুবিধা হবে। ভোট পেছাতে গেলে সবার কাজে অসুবিধা হবে। সম্পৃক্ত সবার সুবিধার চেয়ে অসুবিধাই বাড়বে।

৮৯ বছর বয়সী সাবেক সেনাশাসক ও পাঁচবারের সাংসদ এরশাদ দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৪ জুলাই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এরপর গত ১৬ জুলাই আসনটি শূন্য হওয়ার গেজেট প্রকাশ করা হয়।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন