গত শনিবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় আগামী নির্বাচনে বিএনপিসহ সব দলের অংশগ্রহণ এবং সবার সভা-সমাবেশ করার সুযোগ থাকার কথা আলোচনা হয়। এর এক দিন পর আজ সোমবার কুমিল্লার চান্দিনায় এলডিপি এক সভায় দলের মহাসচিব রেদোয়ান আহমেদের ওপর হামলা হয়।

এ ঘটনায় গণমাধ্যমে একটি বিবৃতিতে পাঠিয়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম। গত শনিবার আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভার দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, এ হামলায় সরকারের ‘স্ববিরোধিতা’ ফুটে উঠেছে।

বিবৃতিতে বিএনপির মহাসচিব বলেন, আওয়ামী সন্ত্রাসীরা রেদোয়ান আহমেদের গাড়ি ভাঙচুর ও বাড়িতে আক্রমণ করে পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে অশোভন আচরণ করেছে। হামলার পর আত্মরক্ষার্থে থানায় আশ্রয় নেওয়ার পর পুলিশ রেদোয়ান আহমেদকে গ্রেপ্তার দেখায়।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার যে সন্ত্রাসনির্ভর এ হামলা তার প্রমাণ। এ ধরনের হামলা বর্তমান সরকারের আমলে ঘৃণ্য দৃষ্টান্তসমূহেরই ধারাবাহিকতা। সরকার নিজেদের অস্তিত্বের প্রশ্নে আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। আগামী দিনে আওয়ামী ফ্যাসিবাদ যে আরও কতটা ভয়ংকর রূপ ধারণ করবে, তা এ ধরনের হামলার মধ্য দিয়ে বহিঃপ্রকাশ ঘটানো হচ্ছে।

বিবৃতিতে রেদোয়ান আহমেদের ওপর হামলায় জড়িত ব্যক্তিদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান মির্জা ফখরুল। পাশাপাশি এ ঘটনার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন