কথা বলতে দিতে হবে: মান্না

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না
ফাইল ছবি: প্রথম আলো

নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, ‘কথা বলার অধিকার বায়ান্নর আন্দোলন থেকে পেয়েছি। কথা বলতেই থাকব। বলতে না দিলেও বলব। কথা বলতে দিতে হবে।’

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘স্বৈরতন্ত্র নিপাত যাক গণতন্ত্র মুক্তি পাক, একুশ মানে অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব বলেন।

মান্না বলেন, সরকার বাঁধন যতই শক্ত করেছে, ততই তা ঢিলে হয়েছে। পত্রিকা বন্ধ হয়েছে, টেলিভিশন কথা বলেছে। টেলিভিশন বন্ধ করেছে, বিশ্বের সব জায়গার টক শোতে বাংলাদেশের কথা বলা হচ্ছে। যতই কথা বন্ধ করার চেষ্টা হবে, ততই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কথা হবে। কথা বন্ধ করা যাবে না।

যাঁরা বায়ান্নতে জীবন দিয়ে বাংলাকে মাতৃভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করলেন এবং সারা পৃথিবীতে আন্তর্জাতিকভাবে মর্যাদা দিলেন, তাঁদের অবদান স্বীকার করা হয় না উল্লেখ করে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি বলেন, আওয়ামী লীগ সব নিজের কৃতিত্ব বলে চালাচ্ছে। ভাষা আন্দোলনের ইতিহস নিয়েও তারা চতুরতার আশ্রয় নিয়েছে, মিথ্যা কথা বলে যাচ্ছে।

এত বছরের বাংলা ভাষা বা সাহিত্যের কোনো বিশেষ উন্নতি হয়নি উল্লেখ করে মান্না বলেন, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউট প্রতিষ্ঠার পরে বাংলা ভাষার বিশেষ কী লাভ হয়েছে? বাংলা ভাষা প্রযুক্তির যুগে প্রবেশ করতে পারেনি।

২৫ ফেব্রুয়ারি নাগরিক ঐক্য রাজধানীর ভাটারায় মহাসমাবেশ করবে বলে সভায় জানান মাহমুদুর রহমান মান্না। তিনি বলেন, তাঁরা অনুমতি চেয়েছেন। যদি না পান, তাহলেও তিনি সমাবেশে যাবেন। সেখানে অন্যান্য দলেরও অংশ নেওয়ার কথা জানিয়ে মান্না বলেন, সেখান থেকে যুগপৎ আন্দোলন হবে।

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এস এম আকরাম, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লা কায়সার, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোফাখখারুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহিদুর রহমান প্রমুখ।