বিজ্ঞাপন

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপি নেতা-কর্মীদের নাকি এক যুগ ধরে ঈদ নেই, তাদের হত্যা করা হচ্ছে এবং মিথ্যা মামলা দেওয়া হচ্ছে। আপনারা কি ভুলে গেছেন, ২০০১ সালে ক্ষমতায় থাকাকালে আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের ওপর নির্মম নির্যাতনের স্টিমরোলার চালিয়েছিলেন?’

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির আমলে মা–বাবা মারা গেলেও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা গ্রামের বাড়ি যেতে পারেননি। দাফন-কাফনের শেষ সুযোগটুকুও দেওয়া হয়নি। ঈদের নামাজ আদায়ের সময়ও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির আমলের নির্যাতনের পুনরাবৃত্তি ঘটানোর কোনো নজির স্থাপন করেনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার।

এ সংবাদ সম্মেলন থেকে ১৭ মে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কর্মসূচি ঘোষণা করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ১৬ ও ১৭ মে আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণাবিষয়ক উপকমিটি তথ্য ও সংবাদচিত্র প্রদর্শনী করবে। ১৬ মে বেলা ১১টায় রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে।

১৭ মে বেলা ১১টায় রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা হবে। ১৭ মে বেলা তিনটায় মহানগর নাট্যমঞ্চে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের দোয়া মাহফিল ও আলোচনা অনুষ্ঠান হবে। এ ছাড়া সারা দেশে মসজিদ, মন্দির, গির্জা ও প্যাগোডায় বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজন করা হবে।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন