বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আজ বুধবার এক বিবৃতিতে সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করিম এসব কথা বলেন।
রেজাউল করিম বলেন, সারা দেশে ইউনিয়ন ও পৌরসভায় নির্বাচন চলছে। এসব নির্বাচনে সারা দেশে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী ও কর্মীদের সরকারদলীয় সন্ত্রাসীরা নজীরবিহীন হয়রানি করছেন। এমনকি সরকারদলীয় দস্যুরা বর্বরোচিত হামলা, প্রাণনাশের চেষ্টা, অপহরণ, মনোনয়নপত্র ছিনতাই, প্রার্থিতা প্রত্যাহারে চাপ প্রয়োগ এবং মামলা দিয়ে হয়রানি করার মতো ঘটনা ঘটিয়ে ভীতিকর পরিবেশ তৈরি করছে। নির্বাচনী এলাকায় বহিরাগত মাস্তানদের দিয়ে মহড়া দিচ্ছে।
বিবৃতিতে চরমোনাইয়ের পীর বলেন, স্থানীয় প্রশাসন এবং রিটার্নিং কর্মকর্তারা সরকারদলীয় দস্যুদের নিয়ন্ত্রণ করছে না বলে অভিযোগ করেন।

কোনো নির্বাচনেই দেশের মানুষ ভোট দিতে পারছেন না উল্লেখ করে চরমোনাইয়ের পীর বলেন, জাতীয় নির্বাচন থেকে শুরু করে পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পর্যন্ত কোনো নির্বাচনেই দেশের মানুষ ভোট দিতে পারছেন না। নির্বাচনে মানুষের এখন বিন্দু পরিমাণ আস্থা নেই। তারপরও ইসলামী আন্দোলন একটি দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে পরিবর্তনের প্রত্যাশা নিয়ে নির্বাচনের মাঠে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দেশে কোনো নির্বাচন কমিশন আছে বলে মনে হয় না। আওয়ামী লীগ নির্বাচনী ব্যবস্থাকে পুরোপুরি ধ্বংস করে দিয়েছে।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন