default-image

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লন্ডন যাত্রা আপাতত স্থগিত করা হয়েছে। আগামীকাল শুক্রবার রাতে লন্ডনে যাওয়ার কথা থাকলেও তিনি যাচ্ছেন না। কবে নাগাদ যাবেন, তা-ও দলের নেতারা নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না। এই সফর নিয়ে বিএনপির ভেতরে-বাইরে একধরনের ধোঁয়াশা সৃষ্টি হয়েছে।
বিএনপির দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানায়, লন্ডন সফরে খালেদা জিয়া চোখের চিকিৎসা করাতেন। পাশাপাশি কমনওয়েলথের মহাসচিব কমলেশ শর্মাসহ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার শীর্ষ কর্মকর্তা এবং যুক্তরাজ্যের শীর্ষস্থানীয় রাজনীতিকের সঙ্গে তাঁর সাক্ষাতের কথা ছিল। এর মধ্যে কমনওয়েলথ মহাসচিবসহ আরেকজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির সাক্ষাৎ-সূচির পরিবর্তন হয়। এ কারণে শেষ মুহূর্তে সফর স্থগিত করা হয় বলে ওই সূত্র জানায়।
অবশ্য বিএনপির মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন আজ বৃহস্পতিবার রাতে প্রথম আলোকে বলেন, খালেদা জিয়ার চোখের চিকিৎসক লন্ডনের বাইরে যাচ্ছেন। ফলে চিকিৎসকের প্রথম সাক্ষাতের পর দ্বিতীয় সাক্ষাতের সময়ের ব্যবধান এক সপ্তাহ হওয়ায় তিনি যাচ্ছেন না। এ ছাড়া তিনি দল পুনর্গঠনে হাত দিয়েছেন। সে জন্য এত লম্বা সময় সেখানে থাকতেও চাইছেন না।
বিএনপির দায়িত্বশীল একজন নেতা জানান, খালেদা জিয়া কাল শুক্রবার লন্ডনে যাচ্ছেন না, তা মোটামুটি নিশ্চিত। চলতি মাসে লন্ডনে যাওয়া হবে কি না, তা নিয়েও অনিশ্চয়তা আছে বলে জানিয়েছেন ওই নেতা।

আজ ২০-দলীয় জোটের সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়া কবে লন্ডনে যাচ্ছেন, জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘এটা খালেদা জিয়ার ব্যক্তিগত বিষয়। তিনি কখন যাবেন, এ ব্যাপারে আমাদের কিছু বলার নেই। আমি কিছু বলতে পারব না।’

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0