প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে নিষ্ঠুর কায়দায় হত্যার ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ। আজ বৃহস্পতিবার বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০-দলীয় জোটের পক্ষে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এই অভিযোগ করেন।

বিবৃতিতে সালাহ উদ্দিন বলেন, গতরাতে বিএনপির চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে রাতের খাবার ও পানি সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। খালেদা জিয়া এবং কার্যালয়ে অবস্থানরত সবাই এখনো অভুক্ত। ভাতে মারার আর পানিতে মারার নীতি অবলম্বন করে, বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন করে, টেলিফোন, ফ্যাক্স, ইন্টারনেট কেবলসহ সব যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়ে শেখ হাসিনা খালেদা জিয়াকে নিষ্ঠুর কায়দায় হত্যার ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছেন।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘জলকামান, বালির ট্রাক, মরিচের স্প্রেসহ সকল ঘৃণ্য কায়দায় নির্যাতন প্রচেষ্টা সত্ত্বেও জনগণের অধিকার আদায়ের আন্দোলন থেকে দেশনেত্রীকে এক চুলও সরাতে ব্যর্থ হয়ে অবশেষে ইতিহাসের জঘন্যতম বর্বর ও হীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করে আওয়ামী সরকার সারা বিশ্বের কাছে বাংলাদেশের সম্মানকে ভূলুণ্ঠিত করছে।’

‘জনগণের ন্যায্য অধিকার আদায়ের আন্দোলনে’ যেকোনো ত্যাগ স্বীকার করতে খালেদা জিয়া প্রস্তুত আছেন বলেও উল্লেখ করে বিবৃতিতে বলা হয়, সরকারের পতন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন অব্যাহত থাকবে।

বিএনপির অভিযোগ, আওয়ামী লীগ প্রতিনিয়ত বিএনপিকে জঙ্গি ও সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে আখ্যায়িত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। সেই ষড়যন্ত্রেরই অংশ হিসেবে প্রতিদিন পরিকল্পিতভাবে আওয়ামী লীগের দুর্বৃত্তদের দিয়ে সহিংসতা ও পেট্রলবোমার নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনা করে বিরোধী দলের ওপর দায় চাপাতে চাইছে।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন