default-image

কার্যালয়ে অবস্থানরত ব্যক্তিদের অভুক্ত রেখে দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া খেতে পারেন না। তাই খালেদা জিয়াও পাঁচ দিন ধরে অভুক্ত। তাঁকে জোর করে ফলের জুস খাওয়ানো হচ্ছে। কার্যালয়ে খাবার সরবরাহ করা নিয়ে সরকার মিথ্যাচার করছে।
গতকাল রোববার দুপুরে গুলশানে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের ফটকে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সেলিমা রহমান। এর আগে কার্যালয়ে অবস্থানকারী কর্মকর্তা, নিরাপত্তারক্ষীদের দুপুরের খাবার ভেতরে নিতে বাধা দেয় পুলিশ।
গত ৩ জানুয়ারি রাত থেকে গুলশানে নিজের কার্যালয়ে অবস্থান করছেন খালেদা জিয়া। সেলিমা রহমান ও মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানাও তাঁর সঙ্গে রয়েছেন।
গতকাল পঞ্চম দিনের মতো খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে কর্মকর্তা ও নিরাপত্তারক্ষীদের খাবার ভেতরে নিতে বাধা দেয় পুলিশ। খালেদা জিয়ার খাবার আসে তাঁর স্বজনদের বাসা থেকে, এই খাবার ভেতরে নিতে কোনো বাধা দেওয়া হয় না। তবে কার্যালয়ে থাকা অন্যদের খাবার আনা হতো হোটেল থেকে।
কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ: হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহারের দাবিতে গুলশান কার্যালয়ের সামনে গতকাল রোববারও বিক্ষোভ করেছে বিভিন্ন সংগঠন এবং শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। বেলা ১১টার পর ওই কার্যালয়ের সামনের রাস্তায় অবস্থান নেন বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের (বিএনএফ) নেতা-কর্মীরা। দলটির সভাপতি ও ওই এলাকার সাংসদ আবুল কালাম আজাদের নেতৃত্বে ৪০-৫০ জন ঘণ্টা খানেক সেখানে অবস্থান করেন।
সকাল ১০টার দিকে বাড্ডা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সেখানে মানববন্ধন করে হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহারের দাবি জানায়। এরপর মানববন্ধন করে কালাচাঁদপুর স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা। এ ছাড়া মুজিব সেনা লীগ ও তাঁতী লীগ সেখানে ঘেরাও কর্মসূচি পালন করে।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন