default-image

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদার স্বাস্থ্যগত উন্নতি হয়নি বলে জানিয়েছেন তাঁর দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তবে বলেছেন, খালেদা জিয়া মানসিকভাবে ভালো আছেন।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

সম্প্রতি মির্জা ফখরুল খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন, এ বিষয়ে জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, 'উনি(খালেদা জিয়া) আমাকে ডেকেছিলেন, আমি গিয়েছিলাম। বাসায় আসার কারণে নিসন্দেহে মানসিকভাবে ওই টুকু রিলিফ তিনি পেয়েছেন। সেকারণে তিনি মানসিক দিক দিয়ে একটু বেটার আছেন। আর স্বাস্থ্যগত দিক থেকে, তাঁর অসুখের দিক থেকে খুব একটা ইমপ্রুভমেন্ট একদমই হয় নাই। তাঁর তো চিকিৎসাই হচ্ছে না। কারণ হাসপাতাল তো বন্ধ প্রায়। হাসপাতালে গিয়ে তিনি পরীক্ষা করবেন সেই পরীক্ষারও সুযোগ নেই।'

সরকারের শর্তের কথা উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, 'উনি বাইরে যেতে পারবেন না। অন্যান্য দেশগুলোতে একই অবস্থা। লকডাউন, যোগাযোগ-টোগাযোগ সবই বন্ধ। সে কারণে চিকিৎসার সুযোগটিও পাচ্ছেন না। উনি আগের যে চিকিৎসা, তাঁর ব্যক্তিগত যেসব চিকিৎসক রয়েছেন তাঁদের সঙ্গে পরামর্শ করে চিকিৎসা কনটিনিউ করছেন।'

গত ১১ মে রাতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গুলশানে খালেদা জিয়ার বাসা ফিরোজায় গিয়ে দলীয় চেয়ারপারসনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। জামিনে মুক্তির পর এটাই ছিল তাঁদের প্রথম সাক্ষাৎ।

গত ২৫ মার্চ সরকারের নির্বাহী আদেশে ছয় মাসের জন্য জামিন পান খালেদা জিয়া। মুক্তির পর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের প্রিজন সেল থেকে তিনি গুলশানের বাসায় উঠেন। এরপর থেকে তিনি সেখানেই আছেন। মুক্তির দিন ছাড়া নেতাদের কারও সঙ্গে এতদিন খালেদা জিয়া সাক্ষাৎ করেননি।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন