বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ‘সন্ত্রাসের রানি’ আখ্যা দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। গতকাল রোববার দুপুরে সিলেটে মহানগর মুখ্য বিচারিক আদালত ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ আখ্যা দেন। মন্ত্রী বলেন, ‘তাঁর (খালেদা) নির্দেশে সারা দেশে সন্ত্রাসী কার্যক্রম ও গুপ্ত হামলা চলছে। আন্দোলনের নামে দেশে সন্ত্রাস চালাচ্ছেন। এটা প্রমাণ করে তিনি সন্ত্রাসের রানি। তাঁকে এভাবেই দেখা উচিত।’
চলমান অবস্থায় ‘খালেদা জিয়া এখন দেশের শত্রু’ মন্তব্য করে অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, ‘তাঁর (খালেদা) চলমান আন্দোলন মোটেই রাজনৈতিক আন্দোলন নয়। এটা একান্ত একটি সন্ত্রাসী উদ্যোগ। খালেদা জিয়া এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন। সুতরাং তাঁকে সন্ত্রাসের রানি হিসেবেই আমাদের দেখা উচিত।’ তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়া একটি বিরোধী দলের নেত্রী। তিনি কর্মসূচি ঘোষণা করে ঘরে বসে থাকেন। কোনো সভা-সমাবেশ করেন না। আর কিছু গুন্ডা গড়ে তুলেছেন। যারা বিভিন্ন স্থানে গোলমাল সৃষ্টি করে। এটাকে রাজনৈতিক কর্মসূচি বলার কোনো অবকাশ নেই।’
জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার কামালউজ্জামানের সভাপতিত্বে জজকোর্ট প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জামায়াত-শিবিরকে নিষিদ্ধ করার আগে বিচার করার কথা বলেন।
বিশেষ অতিথি হিসেবে আরও বক্তব্য দেন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক, সিলেটের বিদায়ী জেলা ও দায়রা জজ মো. মিজানুর রহমান, মহানগর দায়রা জজ আকবর হোসেন মৃধা, সিলেটের সরকারি কৌঁসুলি মিসবাহউদ্দিন সিরাজ।
প্রায় ২৬ কোটি টাকা ব্যয়ে নবনির্মিত পাঁচতলাবিশিষ্ট মুখ্য মহানগর হাকিম আদালত ভবনের আয়তন ১৭ হাজার ৩১৪ বর্গফুট।

বিজ্ঞাপন
রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন