বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ড. কামাল বলেন, ‘গণ অধিকার পরিষদের নেতাদের ওপর অতর্কিত হামলা গণতন্ত্রের জন্য মারাত্মক হুমকি ও অশনিসংকেত। গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে স্বাধীনভাবে চলাফেরা ও সংগঠন করার অধিকার সংবিধান স্বীকৃত নাগরিকের মৌলিক অধিকার। গণ অধিকার পরিষদ নেতা রেজা কিবরিয়া ও ভিপি নুরের সঙ্গে আমাদের নীতিগত পার্থক্য ও ভিন্ন মত থাকতে পারে, কিন্তু গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে তাঁদের ওপর এ ধরনের হামলার জন্য গণফোরাম নিন্দা জানাচ্ছে।’

হামলার ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের বিচারের আওতায় আনার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান ড. কামাল হোসেন।

প্রসঙ্গত আজ বুধবার দুপুর পৌনে ১২টায় ভাসানীর কবরে শ্রদ্ধা জানাতে এসে হামলার শিকার হন গণ অধিকার পরিষদের আহ্বায়ক রেজা কিবরিয়া, সদস্যসচিব ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক এবং তাঁর সহযোগীরা। হামলার জন্য মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীদের দায়ী করেছেন তাঁরা। আজ মাওলানা ভাসানীর ৪৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধা জানাতে কবরে এসেছিলেন গণ অধিকার পরিষদের নেতা-কর্মীরা।

গণ অধিকার পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক শাকিলউজ্জামান দাবি করেন, ছাত্রলীগের হামলায় গণ অধিকার পরিষদের অন্তত ২৫ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন