default-image

চট্টগ্রামসহ সারাদেশে করোনা আক্রান্ত রোগী ও মৃত্যুর সংখ্যা দিন দিন বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। আজ বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে তিনি এই পরিস্থিতির জন্য সরকারের ব্যর্থতাকে দায়ী করেন।

বিবৃতিতে খসরু বলেন, প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস সারা দেশে মহামারী আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। চট্টগ্রামে দিন দিন করোনা সংক্রমিত রোগী ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে। সরকার করোনা মোকাবিলা ও জনগণের চিকিৎসাসেবা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। বর্তমানে চিকিৎসা ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছে। চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে শয্যার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেই। সরকারের ব্যর্থতার কারণে দিন দিন স্বাস্থ্যখাতের অব্যবস্থাপনার চিত্র ফুটে ওঠেছে। মানুষের মধ্যে এখন মৃত্যু আতঙ্ক বিরাজ করছে।

খসরুর অভিযোগ, চট্টগ্রামের হাসপাতালগুলোতে করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীরা ন্যূনতম চিকিৎসাসেবাও পাচ্ছেন না। চিকিৎসার অভাবে মানুষ মারা যাচ্ছে। হাসপাতালে গিয়েও করোনার রোগীরা ভর্তি হতে পারছেন না। চট্টগ্রামের বেশির ভাগ কোভিড হাসপাতালে অক্সিজেন ও সিলিন্ডার সংকট রয়েছে। পর্যাপ্ত আইসিইউর ব্যবস্থা নেই। চিকিৎসার জন্য মানুষ এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে ছুটছে। কিন্তু সময় উপযোগী পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেনা। হাসপাতালে প্রয়োজনীয় যে আধুনিক চিকিৎসা সরঞ্জাম দরকার, সেটাও দেয়নি সরকার।

বিবৃতিতে খসরু বলেন, চট্টগ্রামে করোনা রোগীদের সেবা দিতে সরকার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেয়নি বলে মৃত্যু ও সংক্রমণ ব্যাপকহারে বেড়েছে। এতে চট্টগ্রামের মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে।

চট্টগ্রামসহ সারাদেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে যারা মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁদের শোকাহত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানান খসরু। এ ছাড়া তিনি চিকিৎসক, সাংবাদিক, আইনশৃংখলা রক্ষাকারী ও প্রসাশনসহ চট্টগ্রামের যারা করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন আছেন তাঁদের আশু রোগমুক্তি কামনা করেন।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0