default-image

ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের সংগঠন ছাত্র অধিকার পরিষদের দুজন যুগ্ম আহ্বায়কের খোঁজ পাচ্ছে না তাঁদের পরিবার। তাঁরা হলেন শাকিল-উজ-জামান ও মিনা আল আমিন। এ দুজন শুক্রবার দুপুর থেকে ‘নিখোঁজ’ আছেন।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার মতিঝিল এলাকায় বিক্ষোভ ও সংঘর্ষের ঘটনায় পল্টন থানায় দায়ের হওয়া মামলায় মিনা আল আমিন ৪১ নম্বর আসামি। শাকিল-উজ-জামানের নাম নেই মামলায়। পুলিশের পক্ষ থেকে যে ৩২ জনকে গ্রেপ্তারের কথা জানানো হয়েছে, তার মধ্যেও তাঁরা নেই।

শাকিল সাভারের জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগে স্নাতকোত্তর শ্রেণিতে পড়ছেন। মিনা সিদ্ধেশ্বরী কলেজের ছাত্র।
স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে দুজন সাভার স্মৃতিসৌধে ফুল দিতে গিয়েছিলেন বলে সংগঠন সূত্রে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

শাকিল-উজ-জামানের বাবা শামসুল হক শনিবার সন্ধ্যায় প্রথম আলোকে বলেন, শুক্রবার বেলা একটার পর থেকে ছেলের মুঠোফোন বন্ধ পাচ্ছেন তিনি। পরে ছেলের খোঁজে টাঙ্গাইলের গোপালপুর গ্রামের বাড়ি থেকে সাভারে আসেন শনিবার।
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটকের বাইরে দোকানে শাকিল খাওয়া-দাওয়া করেন বলে সেখানে খোঁজ নিয়েছিলেন তাঁর বাবা।

শামসুল হক বলেন, শাকিলকে ‘র‍্যাবের গাড়ি’ এসে তুলে নিয়ে যায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা তাঁকে জানিয়েছেন। শাকিলের সঙ্গে তখন আরও দুজন ছিলেন।

ছাত্র পরিষদের নেতারা জানান, শাকিলের সঙ্গেই ছিলেন মিনা আল আমিন। তাঁরা স্মৃতিসৌধে ফুল দিতে গিয়েছিলেন। দুজনই নিখোঁজ।

এ বিষয়ে জানতে র‍্যাব সদর দপ্তর ও র‍্যাব-৪–এ যোগাযোগ করেও কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি।

রাজনীতি থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন